২৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গোটা দেশের জন্য একটাই রেশন কার্ড। ২০২০ সালের জুন মাসের মধ্যেই এই ব্যবস্থা চালু করতে চায় কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী রামবিলাস পাসওয়ান জানান, ‘এক দেশ এক রেশন কার্ড’-এর বিষয়ে সমস্ত রাজ্যকে নির্দেশ দিয়েছে তাঁর মন্ত্রক। তিনি আরও জানান,এই ব্যবস্থা চালু হলে যে কেউ যে কোনও পিডিএস দোকান থেকে রেশন তুলতে পারবেন।

[আরও পড়ুন: ২০ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি! ফড়ণবিসের বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ]

এর ফলে রেশন সরবরাহ ঘিরে দুর্নীতির সম্ভাবনাও কমবে বলে আশাপ্রকাশ করেন খাদ্যমন্ত্রী। দেশজুড়ে তৈরি করা হবে রেশন কার্ডে রিয়েল টাইম অনলাইন ডাটাবেস। নতুন এই ব্যবস্থা চালু হলে এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে শ্রমিকের কাজ করতে যাওয়া মানুষেরা সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবেন বলে আশা করা হচ্ছে। ঠিকানা বদলালেই আর রেশন কার্ড বদলানোর ঝঞ্ঝাট না থাকলে ভরতুকির খাদ্যশস্য সহজে সবার কাছে পৌঁছে যাবে। এর ফলে একজনের কাছে লুকিয়ে একাধিক রেশন কার্ড রাখার প্রবণতাও বন্ধ হবে। ইতিমধ্যেই এই ব্যবস্থা চালু করেছে অন্ধ্রপ্রদেশ, গুজরাট, হরিয়ানা, ঝাড়খণ্ড, কর্নাটক, কেরল, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান, তেলেঙ্গানা এবং ত্রিপুরা। চলছে পাইলট প্রজেক্টের কাজ। পাসওয়ান জানান, এই ১০টি রাজ্যে এখন যে-কোনও জেলার দোকান থেকেই কেউ রেশন তুলতে পারেন। চেষ্টা চলছে, ১৫ অগস্টের মধ্যে সেই কাজ আরও এগোনোর।”

[আরও পড়ুন: হোয়াটসঅ্যাপে ইতিহাস পড়েছেন অমিত শাহ! বেনজির কটাক্ষ কংগ্রেসের]

পাসোয়ান বলেন, দেশ জুড়ে আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ডের সংযুক্তিকরণ এবং সমস্ত রেশন দোকানে ‘পিওএস’ যন্ত্রের মাধ্যমে খাদ্যশস্য বিক্রি শুরু করার প্রস্তুতি চূড়ান্ত পর্যায়ে। ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ চালু হলে কোনও উপভোক্তা দেশের যে কোনও প্রান্তের রেশন দোকান থেকে সরকার-নির্ধারিত ভরতুকিযুক্ত মূল্যে খাদ্যশস্য কিনতে পারবেন। কারণ, তখন দেশের সমস্ত রেশন কার্ডের তথ্য একটিই সার্ভারে জমা থাকবে। ২০২০ সালের ৩০ জুনের মধ্যে বিষয়টি চালু করতেই হবে। সেই কাজে গতি আনতে সমস্ত রাজ্যকে আমরা চিঠি লিখেছি।’’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং