২৪  মাঘ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

গণছাঁটাই আমাজনে, সংস্থার বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ কেন্দ্রীয় সরকারের

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: November 28, 2022 12:37 pm|    Updated: November 28, 2022 12:37 pm

Central Labour ministry orders probe against Amazon regarding mass layoff | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এক ধাক্কায় বহু কর্মীকে ছাঁটাই করেছে আমাজন (Amazon Layoff)। সেই জন্য এবার সংস্থাটির বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করতে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। গণ ছাঁটাইয়ের অভিযোগ পেয়ে ইতিমধ্যেই আমাজনকে নোটিস পাঠিয়েছিল শ্রমমন্ত্রক (Labour Ministry)। তার উত্তরে অবশ্য আমাজনের তরফে বলা হয়েছে, কাউকে ছেঁটে ফেলা হয়নি। কয়েকজন কর্মী স্বেচ্ছায় সংস্থা থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। এই জবাবে সন্তুষ্ট না হয়েই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। শ্রম মন্ত্রকের মতে, বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে শ্রমিক আইন লঙ্ঘন করেছে আমাজন। সেই তথ্য জানতেই তদন্ত চালানো হবে।

তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার কর্মীদের একটি সংগঠনে নাইটসের তরফে শ্রমমন্ত্রী ভূপিন্দর যাদবের কাছে অভিযোগ জানানো হয়। ভারতের শ্রমিক আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েই আমাজনের বিপুল সংখ্যক কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়েছে। সেই অভিযোগ পাওয়ার পরেই আমাজনের কাছে জবাব তলব করে কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রক। উত্তরে আমাজন জানায়, কোম্পানি থেকে কোনও কর্মীকেই ছাঁটাই করা হয়নি। স্বেচ্ছায় আমাজন থেকে সরে দাঁড়ানোর সুযোগ রয়েছে কর্মীদের কাছে। সেইভাবেই কোম্পানি ছেড়ে চলে গিয়েছেন বেশ কয়েকজন কর্মী।

[আরও পড়ুন: ইমেলে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে প্রাণনাশের হুমকি, উত্তরপ্রদেশে গ্রেপ্তার আইআইটির প্রাক্তন ছাত্র]

কিন্তু নাইটসের প্রেসিডেন্ট হরপ্রীত সিং সালুজা বলেছেন, বাস্তবে এমনটা মোটেই ঘটেনি। হরপ্রীতের মতে, “কর্মীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল তাঁরা যেন স্বেচ্ছায় আমাজনের চাকরি ছেড়ে চলে যান। যাঁরা এই প্রস্তাবে রাজি হননি, তাঁদের হুমকি দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়েছিল, অবসরকালীন কোনও সুবিধা না দিয়েই কোম্পানি থেকে ছেঁটে ফেলা হবে এই কর্মীদের। সেই কারণেই স্বেচ্ছায় চাকরি ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তাব মানতে বাধ্য হন কর্মীরা। সরাসরি না হলেও ঘুরপথে ছাঁটাই করেছে আমাজন।”

এই অভিযোগের পরেই তদন্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। যদিও আমাজনের তরফে এই তদন্ত প্রসঙ্গে কিছুই বলা হয়নি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শ্রম মন্ত্রক কর্তার মতে, “সংস্থার লাভের কথা ভেবেই স্বেছায় আমাজন ছেড়ে দেওয়ার প্রকল্পটি তৈরি করা হয়েছিল। আমাজন থেকে ছাঁটাই করা হয়েছে, এই বিষয়টি যেন প্রমাণিত না হয়, সেই কারণেই এই বিশেষ প্রকল্প শুরু হয়।” সংস্থার তরফে এই কথাই বলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই কর্তা। ছাঁটাই হওয়া আমাজন কর্মীদের সঙ্গেও শ্রম মন্ত্রকের তরফে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানা গিয়েছে। 

[আরও পড়ুন:রাজনীতির কারাগারে ‘বন্দি’ জাতির জনক, গুজরাটে ভোটের আগে ক্ষোভে ফুঁসছে সবরমতী]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে