BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অন্ধ্র থেকে শূন্য হাতে ফিরছেন মমতার ‘বন্ধু’ চন্দ্রবাবু, হারালেন রাজ্যের গদিও

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: May 23, 2019 6:31 pm|    Updated: May 23, 2019 7:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে মিলে যিনি বিরোধী জোটের সুতো পাকানোর চেষ্টা করছিলেন। সেই চন্দ্রবাবু নায়ডু নিজের রাজ্য অন্ধ্রপ্রদেশ থেকেই ধুয়েমুছে সাফ হয়ে গেলেন। লোকসভা তো বটেই, বিধানসভাতেও জগনমোহন রেড্ডির ওয়াইএসআর কংগ্রেসের ধারেকাছে নেই চন্দ্রবাবু নায়ডুর টিডিপি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৭৫ আসনের অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভায় ১৪৮টি আসনেই হয় এগিয়ে আছেন নয় জিতে গিয়েছেন ওয়াইএসআর কংগ্রেস প্রার্থীরা। টিডিপি প্রার্থীরা এগিয়ে বা জয়ী হয়েছেন মাত্র ২৫ আসনে। অন্যান্যরা জিতেছেন মাত্র ২টি আসনে। অন্যদিকে, লোকসভার ২৫ আসনের সবকটিই জিতেছেন জগনমোহন রেড্ডির দলের প্রার্থীরা। চন্দ্রবাবু নায়ডুর তেলুগু দেশম পার্টির প্রার্থীরা কোনও আসনেই জেতেননি। বিজেপি কংগ্রেসের হাতেও শূন্য। ভোটের বাজারে চন্দ্রবাবু নায়ডুর এই পর্যুদস্ত হওয়াকে রীতিমতো কটাক্ষ করছেন বিরোধীরা। তাদের দাবি, কেন্দ্রে ক্ষমতার লোভে নিজের রাজ্যেই জমি হারিয়ে ফেললেন নায়ডু।

[আরও পড়ুন: লোকসভায় বিপুল জয়ের আভাসের পর প্রথম প্রতিক্রিয়া প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির]

নায়ডু হারলেও আরেক বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক আবার স্বমহিমায় ক্ষমতায় ফিরলেন। আসন কমলেও ভুবনেশ্বরের তখতে ফের দেখা যাবে বিজু জনতা দল সুপ্রিমোকেই। ১৪৭ আসনের ওড়িশা বিধানসভায় বিজু জনতা দলের দখলে ১০১টি আসন। ২৮টি আসন বিজেপির দখলে। অন্যদিকে কংগ্রেসের দখলে গিয়েছে ১৫টি আসন। এরাজ্যে স্পষ্টতই এবার প্রধান বিরোধী দল হিসেবে উঠে এসেছে বিজেপি। লোকসভার ২১ আসনের মধ্যেও বেশিরভাগ আসন জিতেছে বিজেডি। বিজু জনতা দলের দখলে গিয়েছে ১৪টি আসন। বিজেপি জিতেছে ৬ আসন। একটি আসন গিয়েছে কংগ্রেসের দখলে।

[আরও পড়ুন: বারাণসীতে বিপুল ভোটে জয়ী নরেন্দ্র মোদি, সমর্থকদের শুভেচ্ছা জানালেন মা হীরাবেন]

অরুণাচল প্রদেশে ফের ক্ষমতায় আসতে চলেছে বিজেপি। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী অরুণাচল প্রদেশে ২৬টি আসন পেয়েছে বিজেপি। অন্যদিকে, কংগ্রেসের দখলে মাত্র ২টি। অন্যান্যদের দখলে ৬টি আসন। অরুণাচলের দুটি লোকসভা আসনও গিয়েছে গেরুয়া শিবিরের দখলে। সিকিমে রেকর্ড ষষ্ঠবারের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কুরসিতে বসা কঠিন হতে চলেছে পবন চামলিংয়ের জন্য। ৩২ আসনের সিকিম বিধানসভায় চামলিংয়ের দল আপাতত এগিয়ে ১০ আসনে ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement