BREAKING NEWS

২১ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

সীমান্তে যুদ্ধ-যুদ্ধ আবহ, এরই মধ্যে দেশে সাড়ে সাত হাজার কোটি বিনিয়োগ চিনা সংস্থার

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 17, 2020 11:44 am|    Updated: June 17, 2020 12:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সীমান্তে চোখ রাঙাচ্ছে লালফৌজ (PLA)। অতর্কিত হামলায় প্রাণ গিয়েছে ২০ জন ভারতীয় সেনা জওয়ানের। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন আরও চারজন। এরপরই রাগে ফুঁসছে দেশবাসী। চিন পণ্য বয়কটের দাবি উঠেছে। রাজ্যে-রাজ্যে জ্বলছে চিনা প্রেসিডেন্টে কুশপুত্তলিকা। কিন্তু তাতে কি! এমন যুদ্ধ-যুদ্ধ আবহেই মহারাষ্ট্রে সাড়ে সাত হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করল এক চিনা সংস্থা। সেখানে প্রায় তিন হাজার লোকের কর্মসংস্থানও হবে।

জানা গিয়েছে, মহারাষ্ট্রে জেনারেল মোটরসের পুরনো কারখানা অধিগ্রহণ করেছে চিনের গ্রেট ওয়ালস মোটরস (Great Wall Motors বা GWM)। ধাপে ধাপে সেখানে ৭,৬০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে ওই সংস্থা। যেখানে প্রায় তিন হাজার মানুষের চাকরি পাবেন। এই মর্মে মহারাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে ওই সংস্থার মউ (MoU) চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। সেখানে হাজির ছিলেন ভারতে থাকা চিনের দূত সান উইডঙ(Sun Weidong) ও মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী তথা শিব সেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে।

[আরও পড়ুন : পাথর ছুঁড়ে, কাঁটাতার পেঁচানো লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মারা হয় ভারতীয় জওয়ানদের]

এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার ফলে দুপক্ষেরই লাভ হবে বলে দাবি করেছেন সংস্থার প্রধান। গ্রেট ওয়ালস মোটরস সংস্থার ভারতের প্রধান শি পারকার বলেন,”ওই কারখানার সংস্কারের ফলে নতুন কর্মসংস্থান হবে। উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে দুদেশের উপকার হবে। বহু মানুষ কাজ পাবে।” প্রসঙ্গত, আর আগেই দেশের একটি সড়কপথের সুড়ঙ্গ নির্মাণের বরাত পেয়েছে চিনা সংস্থা। তারপর ফের মহারাষ্ট্রে বিনিয়োগ করা হল। এ নিয়ে জলঘোলা শুরু হয়েছে।

[আরও পড়ুন : ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যুর সর্বকালীন রেকর্ড! করোনার বলি ২০০৩ জন]

প্রসঙ্গত, করোনা আবহে দেশখে স্বনির্ভর করতে চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আত্মনির্ভর ভারতের ডাক দিয়েছেন। কিন্তু এরপরেও বিদেশি সংস্থাকে এহেন বরাত দেওয়ায় ক্ষুব্ধ দেশবাসী। লাদাখে চিনা সেনার হামলায় ভারতের ২০ জওয়ান প্রাণ হারিয়েছেন। এরপর দেশজুড়ে চিনা পণ্য বয়কটের হাওয়া জোরালো হয়েছে। এমন আবহে চিনা সংস্থার বিনিয়োগের বিষয়টি দেশবাসী ভাল চোখে দেখছে বলেই দাবি ওয়াকিবহাল মহলের। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement