৫ ফাল্গুন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

মাসুদ আহমেদ, শ্রীনগর: পুলওয়ামার স্মৃতি আরও একবার মনে করিয়ে দিল এ বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি। শুক্রবার পুঞ্চে ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে গুলি চালাল পাকিস্তান। মর্টার শেলও ছোঁড়া হল নিয়ন্ত্রণ রেখা টপকে। জবাবে গুলি চালান ভারতীয় জওয়ানরাও। ঘটনায় শহিদ হয়েছে এক ষাটোর্ধ্ব কাশ্মীরি। আহত হয়েছেন আরও চারজন। সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সীমান্তে দু’পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময় চলছে।

ভারতীয় সেনা সূত্রে খবর, শুক্রবার বিকেলের দিকে আচমকাই সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে পাকিস্তানি সেনা। প্রত্যুত্তরে গুলি চালায় ভারতীয় সেনাও। পুঞ্চের শাহপুর করনি এলাকায় মূলত সংঘর্ষ হচ্ছিল। তবে পাকিস্তানি সেনা শুধু সেনা ছাউনিকে টার্গেট করেছিল, এমন নয়। গ্রামগুলিকেও নিশানা করেছিল তারা। হামলার জন্য ১২০ মিমি মর্টার শেল ব্যবহার করেছিল তারা। শাহপুর ও করনি এলাকায় নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর গ্রাম এবং পোস্টগুলিতে গুলি চালায় তারা। তারই মধ্যে একটি মর্টার শেল মসজিদের কাছে ফাটে। তখন পাশের শাহপুর গ্রামে জুম্মার নামাজ পড়ার জন্য মসজিদের দিকে যাচ্ছিলেন এক বৃদ্ধ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর।

[ আরও পড়ুন: স্ত্রীকে জায়গা করে দিতে ট্রেনের যাত্রীদের সরে বসার অনুরোধ, গণপিটুনিতে মৃত্যু যুবকের ]

ওই বৃদ্ধের নাম বদর দিন। ঘটনায় আহত হন আরও চারজন। তাঁদের মধ্যে দু’জনের নাম মোহাম্মাদ শাবির ও ইমতিয়াজ আহমেদ। প্রথম জনের বয়স ৩২ বছর, দ্বিতীয় জনের বয়স ৩৩ বছর। আহতদের জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পুঞ্চের জেলাশাসক রাহুল যাদব ও এসএসপি রমেশ আঙগরাল হাসপাতাল গিয়ে চিকিৎসাধীন আহতদের সঙ্গে দেখা করেছেন। জেলাশাসক যাদব জানিয়েছেন, নিহতের পরিবারকে এক লক্ষ টাকা অর্থ সাহায্য দেওয়া হবে। আহতদের প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন তিনি। এক বিবৃতিতে এই খবর জানানো হয়েছে।

[ আরও পড়ুন: ১৫ দিনে আটবার! বিহারে ফের আক্রান্ত কানহাইয়া কুমারের কনভয় ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং