৯ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ২৪ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৯ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ২৪ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিনি এলেন, নিজের মতামত জানালেন কিন্তু সাংবাদিকদের কোনও প্রশ্নের উত্তর দিলেন না৷ পাঁচ বছরের শাসনকালে প্রথমবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি। আর এদিনও স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে সাংবাদিকদের প্রশ্ন এড়িয়েই গেলেন নরেন্দ্র মোদি৷ সরাসরি জানিয়ে দিলেন, তিনি নন, সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দেবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷

[ আরও পড়ুন: ‘গান্ধীজিকে অপমান করেছে, ক্ষমা করব না’, প্রজ্ঞার নিন্দায় সরব প্রধানমন্ত্রী]

এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে সাধ্বী প্রজ্ঞা ইস্যুতে মুখে খোলেন অমিত শাহ৷ স্পষ্ট ভাষায় জানান, কুমন্তব্যের জন্য সাধ্বী প্রজ্ঞা, অনন্তকুমার হেগড়ে, নলীন কুমার কাটিলকে নোটিস পাঠিয়েছে দল৷ দশ দিনের মধ্যে তাঁদের উত্তর দিতে হবে৷ এরপরের সিদ্ধান্ত নেবে দলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি৷ শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকের শুরুতেই মোদি সরকারের পাঁচ বছরের কর্মকাণ্ডের বর্ণনা দেন অমিত শাহ৷ আত্মবিশ্বাসের সুরে জানান, ২০১৪-র থেকে আসন বেশি আসন পাবে বিজেপি৷ ৩০০-র কোটা পেরিয়ে যাবে দল৷ এবং আরও বেশি আসন নিয়ে ক্ষমতায় আসবে বিজেপি৷ তিনি জানান, অনন্ত পরিশ্রম করে ১৩৩টি যোজনার মাধ্যমে দেশের সমস্ত বর্গের মানুষের কাছে পৌঁছে গিয়েছে মোদি সরকার৷ দেশের সমস্ত জাতি ও সম্প্রদায়কে ছুঁয়েছে সরকার৷ ১৬ রাজ্যে ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি৷ ২৫ কোটি গরিবের জীবন স্তরকে উন্নত করা হয়েছে৷ বাড়ি-বিদ্যুৎ-শৌচালয়ের মাধ্যমে তাঁদের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দিয়েছে সরকার৷ সার্জিক্যাল স্ট্রাইক ও এয়ারস্ট্রাইকের প্রসঙ্গ টেনে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি দাবি করেন, মোদি সরকারের আমলে দেশ নিরাপদে রয়েছে৷ বলেন, কৃষকদের, দলিত, আদিবাসী ও মহিলাদের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছে সরকার৷

এখানেই শেষ নয়, কংগ্রেসকে খোঁচা দিয়ে অমিত শাহ জানান, এটাই প্রথম নির্বাচন যেখানে দুর্নীতি ও মুল্যবৃদ্ধি কোনও ইস্যু নয়৷ মোদি সরকারের বিরুদ্ধে রাফালে দুর্নীতির যে অভিযোগ করেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ যা এখন সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন৷ এদিন সেই প্রশ্নেরও উত্তর দেন অমিত শাহ৷ জানান, রাহুল গান্ধীর কিছু বলার থাকলে তিনি যেন আদালতে গিয়ে বলেন৷ পাশাপাশি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও আক্রমণ শানান তিনি৷ অভিযোগ করেন, মমতার শাসনকালে পশ্চিমবঙ্গে ৮০ জন বিজেপি সমর্থকের মৃত্যু হয়েছে৷ দেশের সমস্ত রাজ্যে নির্বাচন হলেও, পশ্চিমবঙ্গের মতো হিংসা কোথাও হচ্ছে না৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং