৩ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বৃহস্পতিবার বলেছিলেন আঞ্চলিক দলগুলির থেকে কেউ প্রধানমন্ত্রী হলে অসুবিধা নেই কংগ্রেসের। কারণ, একমাত্র লক্ষ্য হল বিজেপিকে ক্ষমতা থেকে তাড়ানো। ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সেই অবস্থান পুরোপুরি বদলে ফেললেন কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ।

শুক্রবার এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এটা কখনই সত্যি নয় যে প্রধানমন্ত্রী পদ বা সরকার গঠনের জন্য উৎসাহিত নয় কংগ্রেস। এমনিতে আমরাই দেশের সবচেয়ে পুরনো ও বড় রাজনৈতিক দল। তাই যদি পাঁচ বছরের জন্য সরকার চালাতে হয় তাহলে সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক দলকে একটা সুযোগ দিতেই হবে।”

[আরও পড়ুন- ভুয়ো ছবিতে প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষের জের, বিজেপির নিশানায় রাহুল গান্ধী]

যদিও বৃহস্পতিবার তিনি বলেছিলেন, “লোকসভা ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর বিজেপি বিরোধী দলগুলিকে নিয়ে সরকার গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হবে। তখন রাহুল গান্ধীকেই প্রধানমন্ত্রী করতে হবে, এমন কোনও জেদ ধরবে না কংগ্রেস। এনডিএ জোটের বাইরে থাকা কোনও আঞ্চলিক দল থেকে যদি যোগ্য কেউ প্রধানমন্ত্রী হতে চান তাহলে আমরা বাধা হয়ে দাঁড়াব না।”

[আরও পড়ুন- শেষ দফার আগেই ফাঁস এক্সিট পোলের ফলাফল, ভাইরাল সর্বভারতীয় চ্যানেলের ভিডিও]

তিনি আরও দাবি করেন, “শেষ দফা ভোটের একবারে দোরগোড়ায় পৌঁছে গিয়েছি আমরা। দেশজুড়ে দলের প্রচার করার পর আমার যা অভিজ্ঞতা হয়েছে তাতে বলতে পারি বিজেপি বা এনডিএ ক্ষমতায় ফিরছে না। কোনওভাবে প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন না নরেন্দ্র মোদিও। কারণ, গত পাঁচ বছরে দেশের মানুষ বিজেপির স্বরূপ চিনতে পেরেছেন। তাঁরা বুঝতে পেরেছেন যে ঘৃণা ও বিভাজনের রাজনীতি করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায় বিজেপি। গরিব মানুষের ক্ষতি করে শিল্পপতিদের স্বার্থ রক্ষা করছে তারা। তাই লোকসভা ভোটের পর কেন্দ্রে বিজেপি ও এনডিএ বিরোধী সরকারই তৈরি হবে।তারপর বিজেপি বিরোধী দলগুলির সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী ঠিক করা হবে।”

কংগ্রেস সূত্রে জানা গিয়েছে, রাহুল যে প্রধানমন্ত্রী হতে লালায়িত নন, তা আগেও অনেকবার স্পষ্ট করে দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি। যদিও ডিএমকে সুপ্রিমো স্ট্যালিন-সহ বিরোধী দলগুলির অনেক নেতাই কংগ্রেস সভাপতিকে প্রধানমন্ত্রীর আসনে দেখতে চেয়ে প্রকাশ্যেই মন্তব্য করেছেন। যদিও রাহুল-সহ অনেক কংগ্রেস নেতাই বারবার বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী পদ নিয়ে কোনও লোভ নেই কংগ্রেসের। দলের এক ও একমাত্র লক্ষ্য, বিজেপিকে সরানো। তার জন্য বিজেপি বিরোধী দলগুলির মধ্যে থেকে যাঁকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সকলে মেনে নেবেন, তাঁকে মেনে নিতে কোনও আপত্তি থাকবে না কংগ্রেসের। কিন্তু, শুক্রবার সেই অবস্থান থেকে সরে এল কংগ্রেস। ফলাফল প্রকাশের পর তাঁরা যে সরকার গঠনের লড়াইয়ে যে প্রবলভাবেই থাকছে তা স্পষ্ট করে দিলেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং