BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা রুখতে রাজ্যে প্রবেশের ক্ষেত্রে পারমিট সিস্টেম চালু করতে পারে অসম

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: April 6, 2020 4:21 pm|    Updated: April 6, 2020 4:21 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় রাজ্যে প্রবেশের ক্ষেত্রে পারমিট সিস্টেম চালু করতে পারে অসম সরকার। সূত্রের খবর, লকডাউনের পর অসমে প্রবেশপ্রার্থীদের বিশেষ অনুমতি নিতে হতে পারে। 

[আরও পড়ুন: বিয়ের টাকা জমিয়েছিলেন মা-বাবা, করোনা তহবিলে দান করলেন কন্যা]

সূত্রের খবর, কোভিড-১৯ মহামারীর প্রকোপ রুখতে দেশের অন্য অংশ থেকে রাজ্যে প্রবেশের ক্ষেত্রে বিশেষ অনুমতি বা পারমিট প্রথা চালু করার ভাবনা শুরু করেছে অসম সরকার।উত্তর-পূর্বের ৭টি রাজ্যের মধ্যে অসম, ত্রিপুরা ও মেঘলয় বাদে অন্য রাজ্যগুলিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে আইএলপি বা বিশেষ অনুমতির প্রয়োজন হয়। এবার করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে রাজ্যে অবাধ প্রবেশ নিয়ন্ত্রিত করে সেই পথেই হাঁটতে চলেছে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়ালের সরকার। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক আমলা জানিয়েছেন, লকডাউনের জেরে দিল্লি, মহারাষ্ট্র-সহ দেশের অনেক জায়গায় আটকে পড়েছেন অসমের বহু মানুষ। সরকারি নিষেধাজ্ঞা উঠলেই তাঁরা বাড়ি ফেরার চেষ্টা করবেন। ফলে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা বাড়বে অনেকাংশেই। তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে এবার পারমিট ব্যবস্থা চালু করার কথা ভাবছে সরকার। 

এদিকে, অসমের উপ-মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছেন এপর্যন্ত অসমে ২৬জন করোনায় আক্রান্ত। এদের মধ্যে অধিকাংশই দিল্লির নিজমুদ্দিনে তবলিঘি জামাতের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে। তিনি আরও জানান, রাজ্যের প্রায় ৮৩১ জন জামাতের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন। যাঁর মধ্যে ৪৯১ জনের লালরসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে স্থানীয় মসজিদগুলির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। হুঁশিয়ারির সুরে তিনি আরও জানান, এবার থেকে জামাতের অনুষ্ঠানে যাওয়া রাজ্যের যে সকল মানুষের শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া যাবে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে। তবে কিছুটা আশা জাগিয়ে বিশ্বশর্মা জানান, সব মিলিয়ে রাজ্যে ২ হাজার মানুষের লালারসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়ছে। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় অসমে নতুন করে করোনা সংক্রমণের কোনও ঘটনা ঘটেনি।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে মদ না পেয়ে রং-বার্নিশ খেয়ে নেশা, বিষক্রিয়ায় তিনজনের মৃত্যু]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement