৯ কার্তিক  ১৪২৮  বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

আরোগ্য সেতু অ্যাপ সম্পূর্ণ সুরক্ষিত, হ্যাকিংয়ের জল্পনা ওড়াল কেন্দ্র

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 6, 2020 11:26 am|    Updated: May 6, 2020 11:36 am

Corona tracking app Arogya Setu is secured; Govt says

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুরক্ষিত ‘আরোগ্য সেতু’ (Aarogya Setu) অ্যাপ। এই অ্যাপ থেকে তথ্য চুরি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। বুধবার সকালে এই মর্মে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে দেশবাসীকে আশ্বস্ত করল কেন্দ্র।

করোনা আবহে সরকারি বেসরকারি প্রতিটি দেশবাসীর মোবাইলে আরোগ্য সেতু অ্যাপ থাকা আবশ্যিক বলে নির্দেশিকা জারি করেছিল কেন্দ্র। তবে ভুয়ো ‘আরোগ্য সেতু’ অ্যাপ বানিয়ে ভারতীয় সেনাদের থেকে তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার ফাঁদ পেতেছিল পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই (ISI)। হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে আসা এই অ্যাপটি ডাউনলোড করলেই হাতিয়ে নেওয়া হবে সমস্ত ব্যক্তিগত তথ্য। এভাবেই সেনা কর্মী ও আধিকারিকদের মোবাইল হ্যাক করে যাবতীয় তথ্য নিজেদের মুঠোর মধ্যে নিয়ে আসার ছক কষেছে আইএসআইএই। ফলে এই অ্যাপ থেকে তথ্য চুরি যাওয়ার সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন ভারতীয় সেনারাই। তবে সেই দাবি উড়িয়ে কেন্দ্র জানায়, এই অ্যাপটি সম্পূর্ণ সুরক্ষিত। বর্তমানে এই অ্যাপটি ব্যবহার করছেন প্রায় ৯০ লক্ষ ভারতীয়। তাঁদের সকলের ব্যক্তিগত তথ্যই সুরক্ষিত রয়েছে। কোনও ভাবেই তা চুরি যাওয়ার সম্ভাবনা নেই। ভারতীয় সেনাদের সতর্ক বার্তার পরেই চলতি সপ্তাহে আরোগ্য সেতুর নিরাপত্তা বিষয়ে প্রশ্ন তোলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। তিনি জানান, “সরকার এই অ্যাপটিকে নিজের স্বার্থে ব্যবহার করছে। ব্যক্তির ফোনের ডেটা ব্যবহার করে ট্র্যাক করে করোনা সংক্রমণের হটস্পট খুঁজে বের করছে। এভাবেই নজরদারি চালাচ্ছে কেন্দ্র।” তবে রাহুল গান্ধীর এই দাবিকে নস্যাৎ করে তাঁর মন্তব্যের সমালোচনা করেন আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। রবিশঙ্কর প্রসাদের মতে, “এটি অত্যন্ত শক্তিশালী একটি অ্যাপ যা দেশবাসীকে রক্ষা করবে। এর সাহায্যে ডেটা চুরি যাওয়ার কোনও সম্ভাবনাই নেই। অনেকই যানেন না প্রযুক্তির সাহায্যে কিভাবে মানুষের কল্যাণ করা যায়।”

[আরও পড়ুন:চিন থেকে ব্যবসা গোটাতে ইচ্ছুক সংস্থাদের জন্য জমি দেবে ভারত]

সংক্রমণের মাত্রা যত বাড়ছে কেন্দ্রের তরফ থেকে ততই এই অ্যাপ ব্যবহারে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই অ্যাপ ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন। প্রথমে কেবল সরকারি হলেও পরে বেসরকারি কর্মীদের মোবাইলেও এই অ্যাপ রাখা আবশ্যিক বলে জানান হয়। উত্তরপ্রদেশের গৌতম বুদ্ধ নগরের প্রতিটি মানুষের মোবাইলে এই অ্যাপ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। রাস্তায় বের হওয়া নাগরিকদের স্মার্ট ফোনে এই অ্যাপ না থাকলে তা অপরাধ বলে গন্য করা হবে। রবিবার উত্তরপ্রদেশের কমিশনার এই নির্দেশ ঘোষণা করেন।

[আরও পড়ুন:করোনা আক্রান্ত মেদিনীপুর মেডিক্যালে ভরতি হাওড়ার বাসিন্দা, আতঙ্কে কাঁটা হাসপাতাল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement