২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘করোনা ভাইরাস জাত-ধর্ম-বর্ণ দেখে না’, টুইটে জানালেন প্রধানমন্ত্রী

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 19, 2020 8:54 pm|    Updated: April 19, 2020 9:03 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাস মারণ রোগ। জাতি, ধর্ম, বর্ণ দেখে করোনা আসে না। এই কঠিন সময় আমাদের ব্যবহারে ভ্রাতৃত্ববোধ, একতা থাকা উচিত। রবিবার লিঙ্কডিনের পোস্টে টুইট করে দেশবাসীকে বিনম্র হওয়ার ও সহনশীলতার পাঠ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

লকডাউনের প্রথম পর্ব থেকেই সকলকে ধৈর্য রাখার জন্য আবেদন জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বারংবার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেওয়ার সময় বলেন এই সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই সকলকে এক হতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে গিয়ে মানবিকতা ভুলে গেলে চলবে না। করোনা মোকাবিলা করতে দেশাবসীকে একযোগে কাজ করতে হবে। এদিন লিঙ্কডিনে পোস্টে প্রধানমন্ত্রী লেখেন, “কোভিড ১৯ জাতি, ধর্ম, বর্ণ, ভাষা, সীমা দেখে আসে না। এই সময়ে আমাদের ব্যবহারে থাকা উচিত একতা ও সৌভ্রাতৃত্ববোধ। এই রোগের সম্মুখে আমরা সকলেই এক। ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি করা উচিত নয়, যখন সমাজ এবং দেশ একে অপরের বিরুদ্ধে লড়াই করত, আজ সবাই এক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি। তাই সব ঠিক রাখলে ভবিষ্যত হবে একতার সহনশীলতার।” তাঁর কথায়, “ভারতের পরবর্তী চিন্তাভাবনা হওয়া উচিত আন্তর্জাতিক প্রাসঙ্গিকতা এবং ব্যবহার নিয়ে। তাঁদের একটি ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হবে শুধুমাত্র ভারতের জন্যই নয়, পুরো মানবসভ্যতার জন্য।”

[আরও পড়ুন:রেশনের খাদ্যসামগ্রী বিলি নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ, তৃণমূলকে নিশানা কৈলাসের]

প্রধানমন্ত্রী তাঁর ট্যুইটে আরও লেখেন, “আগে রশদ দেখা যেত গুদাম, রাস্তা, মজুতঘর, বন্দরগুলিতে। তবে প্রযুক্তির ভিত্তিতে এই সময়ে বিশেষজ্ঞরা, আন্তর্জাতিকভাবে সরবরাহ নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন তাঁদের বাড়ি থেকেই। করোনা আক্রান্ত পৃথিবীতে ভারত সঠিক স্থানে রয়েছে। তাই করোনা ভাইরাস পরবর্তী সময়ে ভারত এখনকার জটিল সরবরাহের একটি ভরকেন্দ্র হয়ে উঠতে পারে। আমাদের সেই বিষয়টিকে কাজে লাগাতে হবে এই সুযোগটি ব্যবহার করতে হবে। আমি আপনাদের আহ্বান জানাচ্ছি এই বিষয় নিয়ে ভাবতে।

[আরও পড়ুন:আতঙ্কের অপর নাম করোনা ভাইরাস, এর শেষ কোথায়?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement