BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘দয়া করে হেঁটে ফিরবেন না, আমরা ব্যবস্থা করছি’, পরিযায়ী শ্রমিকদের অনুরোধ যোগীর

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 30, 2020 8:23 pm|    Updated: April 30, 2020 8:23 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার সংক্রমণ রুখতে গোটা দেশজুড়ে লকডাউন (Lock down) চলছে। এর ফলে এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ অনেকটা আটকানো সম্ভব হলেও সমস্যায় পড়েছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা। কাজ বন্ধ থাকার ফলে রোজগারের রাস্তা বন্ধ হয়েছে। ফলে অনেক জায়গাতে দেখে গিয়েছে পায়ে হেঁটে নিজেদের রাজ্যে ফেরার চেষ্টা করছেন তাঁরা। এর ফলে কয়েকজনের মৃত্যুও হয়েছে। যার মধ্যে কারোর কারোর বাড়ি উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন এলাকায়। এই ঘটনার কথা প্রকাশ্য আসার পরেই দেশজুড়ে সমালোচনার ঢেউ উঠেছিল।

এবার এই বিষয়ে তাঁদের তাড়াহুড়ো না করার আবেদন জানালেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বললেন, ‘আপনাদের কারোর হেঁটে বাড়ি ফেরার দরকার নেই। যেখানে আটকে রয়েছেন সেখানে একটু ধৈয্য নিয়ে অপেক্ষা করুন। আপনাদের ফেরানোর জন্য আমরা সব ব্যবস্থা করছি।’

[আরও পড়ুন: করোনা আবহে দিল্লির সৌন্দর্যায়ন প্রকল্পে স্থগিতাদেশ নয়, জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট ]

কেন্দ্রের সঙ্গে আলোচনা করার পর বৃহস্পতিবার রাজ্য প্রশাসনের আধিকারিকদের ওই শ্রমিকদের ফেরানোর জন্য প্রস্তুতি নিতে বলেন যোগী। ৬ লক্ষ মানুষের জন্য রাজ্যে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার, শেলটার হোম ও কমিউনিটি কিচেন খোলার নির্দেশ দেন।

পরিযায়ী শ্রমিকদের অনুরোধ জানিয়ে বৃহস্পতিবার যোগী টুইট করেন, ‘এতদিন ধরে আপনারা যে ধৈর্য্যের মনোভাব দেখিয়েছেন তা আরও একটু বজায় রাখুন। অন্য রাজ্যগুলির সঙ্গে আলোচনা করে আপনাদের ঘরে ফেরানোর বিষয়ে বিস্তারিত পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। তাই আপনাদের অনুরোধ করব, যেখানে আছেন সেখানেই থাকুন। প্রয়োজনে ওই রাজ্যের সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। দয়া করে পায়ে হেঁটে আসবেন না।’

[আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কের মধ্যেই হু হু করে বাড়ছে নরেন্দ্র মোদির জনপ্রিয়তা! বলছে সমীক্ষা]

এপ্রসঙ্গে উত্তরপ্রদেশ সরকারের এক মুখপাত্র জানান, যে সমস্ত রাজ্যে উত্তরপ্রদেশের শ্রমিকরা আটকে রয়েছেন সেখানকার সরকারের সঙ্গে কথা হচ্ছে। ওই শ্রমিকদের নাম, মোবাইল নম্বর, ঠিকানা ও শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্ট সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জানতে চেয়ে তাদের চিঠিও পাঠানো হয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement