BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নোট থেকেও করোনার আশঙ্কা! অর্থমন্ত্রীকে খতিয়ে দেখতে আবেদন ব্যবসায়ীদের

Published by: Bishakha Pal |    Posted: March 9, 2020 12:21 pm|    Updated: March 12, 2020 1:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আতঙ্কে তটস্ত গোটা দেশ। ইতিমধ্যেই দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪১। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচতে সমস্ত ধরনের সতর্কতামূলক প্রচার চালানো হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে নির্মলা সীতারমণের দ্বারস্থ ব্যবসায়ীদের সংগঠন কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (CAIT)। অর্থমন্ত্রীর কাছে তাদের প্রশ্ন, টাকা থেকেও কি ছড়াতে পারে করোনা? এ নিয়ে কেন্দ্র সরকারকে একটি কমিটি গঠন করে বিষয়টি খতিয়ে দেখার দাবিও তুলেছে তারা।

সংগঠনের তরফে প্রশ্ন তোলা হয়েছে, বাজার চলতি নোটগুলি জনগণের স্বাস্থ্যের পক্ষে ঝুঁকিপূর্ণ। এর মাধ্যমে সংক্রামক রোগগুলি সহজেই এই ব্যক্তি থেকে অন্য ব্যক্তির মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। এর পরই বিষয়টি নিয়ে তদন্তের দাবি তুলেছে তারা। CAIT-এর মহাসচিব প্রবীণ খান্ডেলওয়াল জানিয়েছেন, নোটের মাধ্যমে যে ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া ছড়িয়ে পড়তে পারে, তা অনেক বিশেষজ্ঞই বলছেন। করোনা ভাইরাসও তাই নোটের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তে পারে। এভাবে চলতে থাকলে হাজার সতর্কতা অবলম্বন করলেও ভাইরাসের প্রকোপ আটকানো সম্ভব নয়। তাই নোটের মাধ্যমে করোনা সত্যিই ছড়িয়ে পড়তে পারে কিনা, আর পারলেও তার মাত্রা কতটা হতে পারে, তা খতিয়ে দেখতে হবে। সেই কারণেই তাঁরা অর্থমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছেন।

[ আরও পড়ুন: হোলির আগে ভূস্বর্গে বানচাল নাশকতার ছক, সোপিয়ানে খতম ২ জঙ্গি ]

এই প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন ও বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের কাছেও চিঠি পাঠিয়েছে কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স। প্রয়োজন হলে ডিজিটাল পেমেন্ট-সহ অন্যান্য বিকল্প পদ্ধতির ব্যবস্থাও সরকারকে করার আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা। সংগঠনের পক্ষ থেকে এও জানানো হয়েছে, নোটের মাধ্যমে ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া যাতে না ছড়িয়ে পড়ে তার জন্য ব্রিটেন, অস্ট্রেলিয়া ও কানাডার মতো দেশ পলিমার নোটের দিকে ঝুঁকেছে। যদি এদেশেও এমন ব্যবস্থা করা যায়, তা খতিয়ে দেখার আবেদন জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

ভারতে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪১ জন। তার মধ্যে একটি তিন বছরের শিশুও রয়েছে। পরিবারের সঙ্গে সদ্য ইটালি ঘুরতে গিয়েছিল সে। শনিবার দেশে ফেরে। কোচি বিমানবন্দরেই তাঁদের পরীক্ষা করা হয়। তারপরই জানা যায়, শিশুটি করোনায় আক্রান্ত। একইসঙ্গে জম্মু ও কাশ্মীরের কারগিলের এক বাসিন্দাও covid-19 ভাইরাসে আক্রান্ত। সদ্য ইরান থেকে ফিরেছিলেন তিনি। যেভাবে এ দেশে করোনা প্রভাব বিস্তার করছে তাতে চিন্তিত সাধারণ মানুষ। ইতিমধ্যেই দেশে করোনা সন্দেহে ভরতি এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়।

[ আরও পড়ুন: ‘মমতাকে সরিয়ে ২০২১ সালেই দখল করব ক্ষমতা’, হুঙ্কার বিজেপি নেতা রাম মাধবের ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement