৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনার কবলে আরও চার বিদেশফেরত, দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৭

Published by: Bishakha Pal |    Posted: March 10, 2020 8:44 am|    Updated: March 12, 2020 1:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতে ক্রমশ বাড়ছে প্রাণঘাতী নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। মঙ্গলবার নতুন করে চারজনের দেহে করোনা ভাইরাসের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। তার মধ্যে দু’জন মহারাষ্ট্র, তিনজন কর্ণাটক ও আর একজন পঞ্জাবের বাসিন্দা। কেরলয় আরও ছ’জনের দেহে করোনা ভাইরাসের সন্ধান মিলেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সূত্রে খবর, আইসোলেশনে রেখে তাঁদের প্রত্যেকের চিকিৎসা শুরু হয়েছে। এই চারজনকে নিয়ে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হল ৫০ জন।

কর্ণাটকের চিকিৎসা সংক্রান্ত শিক্ষামন্ত্রী কে সুধাকর জানিয়েছেন, বেঙ্গালুরুর এক সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়রের দেহে করোনার সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। সম্প্রতি তিনি আমেরিকা থেকে ফিরেছিলেন। তারপরই অসুস্থ বোধ করতে থাকেন তিনি। পরিবারের লোকেরা তাঁকে হাসপাতালে ভরতি করেন। ওই ইঞ্জিনিয়রের সোয়াব টেস্ট করা হয়। পরীক্ষার রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। অন্যদিকে পঞ্জাব থেকে এদিন প্রথম করোনা আক্রান্তের খবর পাওয়া গিয়েছে। তিনি গত সপ্তাহে ইটালি থেকে ফিরেছিলেন। পঞ্জাব সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, সোমবার পর্যন্ত রাজ্যে ৫ হাজার ৯৬৪ জন বিদেশফেরতের সোয়াব টেস্ট করা হয়েছে। তার মধ্যে একজনের রিপোর্ট পজেটিভ। মহারাষ্ট্রের পুণেতে দুই ব্যক্তির দেহে করোনার সন্ধান পাওয়া গিয়েছে, তিনিও সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন। কাজের সূত্রে দুবাই গিয়েছিলেন তাঁরা। নাইডু হাসপাতালে আইসোলেশন বিভাগে রেখে তাঁদের চিকিৎসা চলছে। যাঁরা এই ক’দিনে তাঁদের সংস্পর্শে এসেছ্ন, তাঁদের রক্তের নমুনাও পাঠানো হয়েছে পরীক্ষাগারে।

Corona virus

[ আরও পড়ুন: মুখে মাস্ক-হাতে রং, ‘হোলিকা দহনে’ করোনাসুরকে বধ করলেন উৎসবপ্রেমীরা ]

এদিকে, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন করোনা ভাইরাস নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। সর্দি-কাশির মতো এটি একটি ভাইরাস। গরম বাড়লে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ অনেকটাই কমে যাবে। করোনা ভাইরাস নিয়ে আলোচনা করতে সম্প্রতি বাইপাসের ধারে একটি পাঁচতারা হোটেলে ন্যাশনাল সেমিনারের আয়োজন করা হয়। তাতে উপস্থিত ছিলেন সাতটি দেশের এবং রাজ্যের অন্তত পাঁচশো চিকিৎসক। সেখানেই একথা জানানো হয়েছে। ওই সেমিনারে এও বলা হয়, তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রির বেশি হয় হলে এই ভাইরাস কাবু হবে। দেশবাসীর আতঙ্কের কোনও কারণ নেই। এই ভাইরাস কিন্তু মানুষের প্রাণহানি ঘটাতে পারে না। মাত্র ২-৩ শতাংশ মানুষের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণহানি ঘটেছে। এর থেকে অন্যান্য ভাইরাস মানুষের প্রাণহানির আশঙ্কা অনেক বেশি বাড়িয়ে দিতে পারে। মূলত শিশু, বয়স্ক এবং ডায়াবেটিস রোগীদের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তবে ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই। বরং প্রচুর জল খান এবং বিশ্রাম নিন।

[ আরও পড়ুন: প্রশ্নের উত্তর দিলেই মিলবে ‘বিশেষ সুযোগ’, সোশ্যাল সাইটে ফের চমক মোদির ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement