১১ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আম্বেদকরের অনুগামীদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, রামদেবের গ্রেপ্তারির দাবিতে বিক্ষোভে দলিতরা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 24, 2019 10:30 am|    Updated: November 24, 2019 10:35 am

Dalits stage protest, burnt Ramdev's effigy and seek arrest

ফাইল ফোটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েকদিন আগে দক্ষিণ ভারতের প্রয়াত জননেতা রামাস্বামী পেরিয়ার ও ডক্টর ভীমরাও আম্বেদকরের নামে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন রামদেব। সঙ্গে সঙ্গে তার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছিল পেরিয়ারের অনুগামী ডিএমকে। পেরিয়ারকে নিয়ে রামদেবের মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন দলের সুপ্রিমো স্টালিন। এবার প্রতিবাদে সরব হয়ে উঠলেন ভারতীয় সংবিধানের মূল কাণ্ডারী ও দলিতদের আইকন আম্বেদকরের অনুগামীরা। শনিবার উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে রামদেবের গ্রেপ্তারির দাবিতে বিক্ষোভ দেখালেন তাঁরা। পোড়ালেন যোগগুরুর কুশপুতুলও। বিক্ষোভ দেখানোর পর মিছিল করে গিয়ে গাজিয়াবাদের জেলাশাসকের কাছে একটি স্মারকলিপিও জমা করে তাঁরা।

[আরও পড়ুন: কীভাবে তৈরি হয় রকেট? তথ্য দেবে ন’বছরের খুদের বানানো অ্যাপ]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি ডক্টর ভীমারাও আম্বেদকরের অনুগামীদের ‘ইন্টালেকচুয়াল টেরোরিস্ট’ বলে কটাক্ষ করেন রামদেব। তারপর থেকে তাঁর সমালোচনায় মুখর হয়েছিলেন দলিত সম্প্রদায়ের কিছু ব্যক্তি। বিষয়টি জানাজানি হতেই রামদেবের গ্রেপ্তারির দাবি জানাতে থাকেন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ডক্টর আম্বেদকর মিশনের সদস্যরা। শনিবার সেই দাবিতে গাজিয়াবাদে একটি বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিয়েছিলেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও জাতীয় সভাপতি অশোক সন্ত। তাতে সাড়া দিয়ে গাজিয়াবাদের রাস্তায় জড়ো হন আম্বেদকর মিশনের একাধিক সদস্য। তারপর রামদেবের গ্রেপ্তারির দাবিতে বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি তাঁর কুশপুতুল পোড়ানো। বিষয়টি কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়ালেও কোনও অশান্তির সৃষ্টি হয়নি। বিক্ষোভের পর জেলাশাসকের কাছে রামদেবের গ্রেপ্তারি চেয়ে একটি স্মারকলিপি জমা দেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন: চেন্নাইয়ের হাসপাতালে প্রয়াত রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ক্ষিতি গোস্বামী]

এপ্রসঙ্গে অশোক সন্ত বলেন, ‘রামদেব একজন ব্যবসায়ী। যিনি ভারতীয় জনগণকে বোকা বানাচ্ছেন। আমাদের পূর্বপুরুষরা দেশপ্রেমিক ছিলেন। তাই রামদেবের থেকে দলিতদের দেশপ্রেমের পাঠ নেওয়ার যেমন দরকার নেই। তাঁর থেকে এবিষয়ে কোনও শংসাপত্রও চাই না আমরা। ওনাকে বলব, ভবিষ্যতে এই ধরনের মন্তব্য করার বিষয়ে সচেতন থাকবেন। না হলে খুব বড় সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে।’

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে