BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

দেশে চরম সংকটের মধ্যেও চিনে পাচারের ছক, দিল্লি থেকে বাজেয়াপ্ত লক্ষাধিক মাস্ক-পিপিই কিট

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 14, 2020 11:19 am|    Updated: May 14, 2020 11:19 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একদিকে করোনার সঙ্গে দেশ যখন মোকবিলা করছে, এরই মাঝে চলছে দেদার বেআইনি কারবার। বুধবার রাতে লক্ষাধিক মাস্ক বাজেয়াপ্ত করল দিল্লির শুল্ক দপ্তরের আধিকারিকরা। জানা গিয়েছে প্রায় ৫ লক্ষের মাস্ক ও ৯৫২টি পিপিই কিট পাচার করা হচ্ছিল চিনে। এরই সাথে ছিল কিট তৈরির উপকরণ, স্যানিটাইজার।

দিল্লির শুল্ক দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে নয়াদিল্লির কুরিয়ার টার্মিনাল থেকে ৫ লক্ষেরও বেশি মাস্ক, ৯৫০টি বোতলে মজুত থাকা ৫৫ লিটার স্যানিটাইজার এবং ৯৫২ পিপিই কিট বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, এর পাশাপাশি মাস্ক, পিপিই কিট ও স্যানিটাইজার প্রস্তুতকারক কাঁচামালও উদ্ধার হয়েছে। যার পরিমাণ প্রায় ২ হাজার ৪৮০ কেজির মতো বলে জানানো হয়েছে দিল্লির শুল্ক দপ্তরের তরফে। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে এবং কিছু ফোন ট্যাপ করেই এই পাচার চক্রের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে দপ্তরের তরফে।

প্রসঙ্গত, ১৯শে মার্চ ডিরেক্টর জেনারেল অফ ফরেন ট্রেডের তরফে ভেন্টিলেটর, সার্জিক্যাল সামগ্রী, মাস্ক, পিপিই কিটের রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। এছাড়াও ৭ই এপ্রিল অ্যালকোহল বেসড স্যানিটাইজার রপ্তানিতেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। বর্তমানেও এই সমস্ত দ্রব্য জোগান দিতে নাভিশ্বাস উঠছে।

[আরও পড়ুন: ‘ইদে শর্তসাপেক্ষে জমায়েতের অনুমতি দিন’, কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি কংগ্রেস নেতার]

করোনা আবহের একেবারে গোড়ার দিক থেকেই দেশে পিপিই কিট, মাস্ক এবং স্যানিটাইজারের আকাল দেখা দিয়েছে। যদিও বর্তমানে ভারতে পার্সোনাল প্রোটেকশন ইক্যুইপমেন্ট কিট ও মাস্ক উৎপাদনের কাজ চলছে, তবে করোনা মোকাবিলায় অত্যবশকীয় এই দ্রব্যগুলির সংকট পুরোপুরিভাবে এখনও যায়নি। অন্যদিকে, ভারতে ক্রমশ বাড়তে থাকা করোনা সংক্রমণ সরকার তথা সাধারণ মানুষের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। আর দেশের এমন সংকটকালীন পরিস্থিতির মাঝেই দিল্লি থেকে মাস্ক, পিপিই কিট ও স্যানিটাইজার চোরাপথে চিনে চালান করার কাজ চলছিল। এমনই ভয়ংকর তথ্য প্রকাশ করেছে দিল্লির শুল্ক দপ্তর। যেখানে গত ১৯ মার্চ থেকে এই দ্রব্যগুলির বিদেশে রপ্তানি করার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে, সেখানে কীভাবে চোরাপথে এত পরিমাণ দ্রব্য চিনে রপ্তানি হচ্ছিল? উঠছে প্রশ্ন।

এপ্রসঙ্গে দিল্লির শুল্ক দপ্তরের আধিকারিক জানিয়েছেন, দেশের এই মুহূর্তে আয পরিস্থিতি তাতে বিদেশে এই সমস্ত দ্রব্য রপ্তানি করা বন্ধ রয়েছে। সেই প্রেক্ষিতে এত পরিমাণ মাস্ক, স্যানিটাইজার-সহ কাঁচামাল বিদেশে পাচার হওয়া সত্যিই বিপজ্জনক।

[আরও পড়ুন: দেশে করোনা আক্রান্ত ৭৮ হাজার পেরল, একলাফে অনেকটা বাড়ল মৃতের সংখ্যা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement