BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২১ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

নয়াদিল্লির সৌন্দর্য বাড়াতে শতাব্দী প্রাচীন হনুমান মন্দির ভাঙার জের, প্রবল বিক্ষোভ VHP’র

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: January 5, 2021 2:14 pm|    Updated: January 5, 2021 2:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ১০০ বছরের প্রাচীন হনুমান মন্দির ভাঙার ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রবল উত্তেজনা ছড়িয়েছে নয়াদিল্লির চাঁদনি চক এলাকায়। একদিকে রাজ্যের শাসকদল আম আদমি পার্টি ও কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপি একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলে বাগযুদ্ধ শুরু করেছে। অন্যদিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে ওই এলাকায় প্রবল বিক্ষোভ দেখাচ্ছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ-সহ বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী সংগঠন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দিল্লি সরকারের সৌন্দর্যায়ন প্রকল্পের কারণে কিছুদিন আগে চাঁদনি চক (Chandni Chowk) এলাকার ওই শতাব্দী প্রাচীন হনুমান মন্দিরটি ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেয় স্থানীয় একটি আদালত। সেই অনুযায়ী রবিবার ভোরে ওই মন্দিরটি ভেঙে ফেলে উত্তর দিল্লি পুরসভা (NDMC)। সকালে বিষয়টি চোখে পড়তেই স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে উত্তেজনাও। পরে মন্দির ভাঙার প্রতিবাদে ওই এলাকায় মিছিল শুরু করেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের (VHP) নেতা-কর্মীরা। হাতে গেরুয়া পতাকা নিয়ে স্লোগান দেন। মন্দির ভাঙার তীব্র নিন্দা করে ফের তা তৈরির করার দাবি জানাতে থাকেন। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠছে দেখে বেশিরভাগ দোকান বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে শান্তিশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ করতে দেখা যায় দিল্লি পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনীর জওয়ানদের। তবে এখনও সেখানে প্রবল উত্তেজনা রয়েছে।

[আরও পড়ুন:‘দ্রুত এগোচ্ছে দেশ’, কোচি-মেঙ্গালুরু পাইপলাইনের উদ্বোধনে আত্মবিশ্বাসী প্রধানমন্ত্রী ]

এদিকে এই ঘটনার পর থেকেই মন্দির ভাঙার জন্য একে অপরকে দায়ী করছে আপ ((AAP) ও বিজেপি (BJP)। দিল্লির আপ নেতাদের অভিযোগ, গন্ডগোল পাকানোর জন্য ভোরবেলা যখন সবাই ঘুমোচ্ছেন তখন ওই মন্দিরটি ভেঙে ফেলে বিজেপিশাসিত উত্তর দিল্লি পুরসভা। দিল্লি পুলিশের সাহায্যেই মন্দিরটি ভেঙেছে তারা। অন্যদিকে বিজেপির দাবি, ওই এলাকাটি দিল্লির আপ সরকারের সৌন্দর্যায়ন প্রকল্পের অন্তর্গত। তারাই আদালত থেকে ওই মন্দিরটি ভাঙার নির্দেশ বের করেছে। তার ফলে ভাঙতে হয়েছে মন্দির। তবে এই ঘটনার পর বিজেপির প্রতিনিধিরা নয়াদিল্লির উপ-রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে মন্দিরটি পুনর্নিমাণের দাবিও জানিয়েছেন। দুটি দল এভাবে অন্যের ঘাড়ে দায় চাপাতে চাইলেও পুরো বিষয়টি বিজেপি ও আপের নোংরা রাজনীতির কারণে ঘটেছে বলে অভিযোগ দিল্লির প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্বের।

[আরও পড়ুন: অতিমারীর মধ্যেই আতঙ্ক ছড়াচ্ছে বার্ড ফ্লু! রাজস্থানের পর আরও ৩ রাজ্যে জারি সতর্কতা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement