৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘করোনা ভাইরাস ছড়াতে এসেছেন’, ফল কিনতে বেরিয়ে হেনস্তার শিকার ২ মহিলা চিকিৎসক

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 9, 2020 9:14 am|    Updated: April 9, 2020 9:21 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাসকে রুখতে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন তাঁরা। তারপরও প্রতিবেশীর হাতে হেনস্তার শিকার দিল্লির সফদরজং হাসপাতালের দুই মহিলা চিকিৎসক। অল্পবিস্তর মারধরও করা হয় তাঁদের। সামান্য চোটও পেয়েছেন দু’জনে। স্থানীয়দের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁরা।

ঠিক কী ঘটেছিল? ওই মহিলা চিকিৎসকেরা বলেন, “বুধবার সন্ধেয় দিল্লির গৌতম নগরের বাজারে ফল কিনতে গিয়েছিলাম। বাড়ির বাইরে পা রাখা মাত্রই একজন ব্যক্তি আমাদের দেখে চিৎকার শুরু করল। সকলকে আমাদের থেকে দূরত্ব বজায় রাখার জন্য সাবধান করতে শুরু করে। আমরা অবাক হয়ে যাই। ওই ব্যক্তি বলতে শুরু করেন আমরা করোনা ভাইরাস ছড়াতে এসেছি। আমরা প্রথমে চুপ করেছিলাম। পরে প্রতিবাদ করতে শুরু করি। যথেষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করেই রাস্তায় বেরিয়েছি বলেই জানাই। কিন্তু ওই ব্যক্তি সেকথা কানেই নিতে চান না। কথা কাটাকাটি শুরু হয়ে যায় আমাদের। এরপরই ওই বাজারে থাকা বেশ কয়েকজন আমাদের উপর হামলা করে।” মারধরের ফলে অল্পবিস্তর চোটও পেয়েছেন ওই দুই মহিলা চিকিৎসক। তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসাও করা হয়েছে। 

সফদরজং হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য ডঃ মণীশ এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন। তিনি বলেন, “ওই দুই মহিলা চিকিৎসক জরুরি বিভাগেই মূলত রোগীদের চিকিৎসা করেন। প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে মরণাপন্ন রোগীদের বাঁচিয়ে তোলার কাজ করে। তারপর তাঁদের উপর অত্যাচার সত্যিই মেনে নেওয়া যায় না।”

[আরও পড়ুন: ‘৫ মিনিট দাঁড়িয়ে মোদিকে সম্মান জানান’, নেটদুনিয়ায় বার্তা পেয়ে কী জবাব প্রধানমন্ত্রীর?]

এই ঘটনায় পরই পুলিশের কাছে গোটা বিষয়টি জানান সফদরজং হাসপাতালের ওই দুই মহিলা চিকিৎসক। হামলাকারী প্রতিবেশীদে বিরুদ্ধে এফআইআর করেন তাঁরা। মহিলা চিকিৎসকদের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ইতিমধ্যেই ৪৪ বছর বয়সি এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে।  


[আরও পড়ুন: চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের একঘরে করে রাখা যাবে না, সব রাজ্যকে বার্তা পাঠাল কেন্দ্র]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement