BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘ভয় না পেয়ে সত্যিটা বলুন’, লাদাখ ইস্যুতে ফের প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ রাহুলের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: June 26, 2020 11:53 pm|    Updated: June 26, 2020 11:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের লাদাখ ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে তোপ কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। শুক্রবার টুইট করে প্রধানমন্ত্রীকে সীমান্তের সত্যতা সম্পর্কে জানতে চান ওয়ানাড় সাংসদ। ভয় না পেয়ে দেশবাসীর কাছে সীমান্তের সঠিক তথ্য তুলে ধরার পরামর্শ দেন তিনি।

ইন্দো-চিন সীমান্ত সমস্যা নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক হলেও এখনও অধরা সমাধান। ফলে কৌতুহল বাড়ছে দেশবাসীর। অপরদিকে সীমান্ত সংক্রান্ত বিষয়ে কেন্দ্র মুখে কুলুপ আঁটলেও সীমান্তে চিনা আগ্রাসন যে এখনও অটুট তা স্পষ্ট। প্রতিবারের মত সীমান্ত সমস্যা নিয়ে শুক্রবার ফের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ফের কটাক্ষ করলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। শুক্রবার টুইট করে তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী জি, আপনি ভয় পাবেন না। সত্যি কথাটা বলুন। দেশবাসী আপনার থেকে সত্যিটা শুনতে চায়।” এদিন স্যাটেলাইট ছবির প্রসঙ্গ তুলে ধরে ওয়ানাড় সাংসদ কটাক্ষ করেন, “কয়েকদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন যে ভারতীয় কোনও পোস্টই চিনের অধীনে নেই। অথচ স্যাটেলাইট চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন ছবি তুলে ধরছে। এখানেই প্রধানমন্ত্রীর তথ্যের সঙ্গে সত্যের দ্বন্দ্ব বাধঁছে।”

[আরও পড়ুন:১৫ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা, আনলক ২.০-তে কোন ক্ষেত্রে মিলতে পারে ছাড়?]

অপরদিকে চিনা দূতাবাসের কাছ থেকে অনুদান নেওয়ায় রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন। তাই নিয়ে কংগ্রেসকে আক্রমণ শানালে পালটা আক্রমণ করেন কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী। কড়া ভাষায় আক্রমণ শানিয়ে তিনিও বলেন “কংগ্রেসকে আক্রমণ না করে চিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিক কেন্দ্র। সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছে মোদি সরকার। আর তার সুযোগের সদ্ব্যবহার করছে চিন। কংগ্রেস কোনওদিন জাতীয় স্বার্থের সঙ্গে আপস করেনি। বিজেপির কেউ সেই প্রমাণ দেখাতে পারলে আমি ইস্তফা দেব।”

[আরও পড়ুন:২ বছর ধরে ডাল লেক সাফাইয়ের সম্মান, কাশ্মীরি কন্যার গল্প এবার পাঠ্যবইয়ে]

তাঁর দাবি, “হিমালয় উপত্যকায় নিজেদের ভুল ঢাকতে কংগ্রেসকে দোষারোপ করছে বিজেপি। নয়তো ওরা ইতিহাস ভুলে গিয়েছে।” প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধির প্রসঙ্গে টেনে বহরমপুরের এই সাংসদ বলেন, “ওরা হয়তো ভুলে গিয়েছেন ১৯৮৪ সালে অপারেশন মেঘদূত করে চিন থেকে সিয়াচেন ছিনিয়ে নিয়েছিল ভারত। পাকিস্তান ভেঙে বাংলাদেশ তৈরি করেছিল ভারত।” তবে এই তোপের মুখে পড়েও সীমান্ত নিয়ে কোনও মন্তব্যই করছে না মোদি সরকার।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement