৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুজোর পরপরই দুই রাজ্যে নির্বাচন। শনিবার ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন। মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানা দুটি রাজ্যেই নির্বাচন হবে এক দফায়। দুই রাজ্যের নির্বাচনী বিজ্ঞপ্তি জারি ২৭ সেপ্টেম্বর। মনোনয়ন দেওয়ার শেষ দিন ৪ অক্টোবর। মনোনয়নের স্ক্রুটিনি হবে ৫ অক্টোবর। প্রার্থীদের নাম প্রত্যাহারের শেষ দিন ৭ অক্টোবর। দুই রাজ্যে একসঙ্গে নির্বাচন হবে ২১ অক্টোবর। ২৪ অক্টোবর ভোটগণনা।

[আরও পড়ুন: চাঁদের মাটিতে নামল শীতল রাত, বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগের সব আশা শেষ]

মহারাষ্ট্রে ২৮৮ আসনের মধ্যে ২০১৪ বিধানসভায় বিজেপি জিতেছিল ১২২টি আসন। শিব সেনা জিতেছিল ৬৩টি। অর্থাৎ বিজেপি-শিব সেনা জোট জিতেছিল ১৮৫টি আসন। বিরোধী কংগ্রেস ৪২ এবং এনসিপি ৪১টি আসন পেয়েছিল। অন্যান্যদের দখলে গিয়েছিল ২০টি আসন। ২০০৯ বিধানসভা নির্বাচনে মাত্র ৪৬টি আসন পাওয়া বিজেপি গত বিধানসভায় চমকপ্রদভাবে প্রথম স্থানে উঠে আসে। এবারের বিধানসভা নির্বাচনেও বিজেপিকে অনেকটা এগিয়ে রাখছেন বিশেষজ্ঞরা। সম্প্রতি লোকসভা নির্বাচনেও মহারাষ্ট্রে দুর্দান্ত ফল করেছে বিজেপি-শিব সেনা জোট। স্বাভাবিকভাবেই, বিধানসভার আগে অ্যাডভান্টেজে গেরুয়া শিবির। যদিও, বিজেপিকে এবার লড়তে হবে কংগ্রেস-এনসিপি জোটের বিরুদ্ধে। কংগ্রেস এবং এনসিপি এবারে ১২৫টি করে আসনে লড়বে। অন্যদিকে, বিজেপি-শিব সেনা জোটের আসনরফা এখনও চূড়ান্ত হয়নি। লড়াইয়ে আছে রাজ ঠাকরের মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনা এবং প্রকাশ আম্বেদকরের বঞ্চিত বহুজন বিকাশ আগাডিও।

[আরও পড়ুন: মন্দা রুখতে জিএসটিতেও ব্যাপক ছাড়, ১ অক্টোবর থেকে সস্তা বেশ কিছু জিনিস]

অন্যদিকে, ৯০ আসনবিশিষ্ট হরিয়ানা বিধানসভায় আগেরবার ৪৭টি আসন জেতে বিজেপি। ওমপ্রকাশ চৌটালার আইএনএলডির দখলে গিয়েছিল ১৯টি আসন। কংগ্রেস জেতে মাত্র ১৫টি আসন। ২০০৯ সালে অবশ্য হরিয়ানায় সরকার ছিল কংগ্রেসেরই। কিন্তু, গত বিধানসভার ধাক্কা সামলাতে পারেনি কংগ্রেস। সম্প্রতি শেষ হওয়া লোকসভাতেও শূন্য হাতে ফিরতে হয়েছে কংগ্রেসকে। এবারেও দলের অন্দরের অন্তর্দ্বন্দ্ব ভোগাচ্ছে হাত শিবিরকে। তাই, হরিয়ানাতেও খানিকটা এগিয়ে বিজেপি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং