BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিহারে হারের ইঙ্গিত মিলতেই শুরু ইভিএমকে দোষারোপ! কারচুপির অভিযোগ কংগ্রেস নেতার

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 10, 2020 2:11 pm|    Updated: November 10, 2020 2:11 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্কশেষপর্যন্ত বিহারের শাসনক্ষমতা কি ধরে রাখতে পারবে এনডিএ? নাকি সরকার গড়বে বিরোধী মহাজোট? প্রশ্নের উত্তর পেতে আর বেশি দেরি নেই। এখনও পর্যন্ত গণনার যা হাল হকিকত, মনে করা হচ্ছে নীতীশ কুমারের (Nitish Kumar) সরকারই ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তন করতে চলেছে। এরই মধ্যে বিস্ফোরক কংগ্রেস নেতা উদিত রাজ (Udit Raj)। ইভিএমের (EVM) কার্যকারিতা নিয়ে ফের প্রশ্ন তুলে দিলেন তিনি।

আজ দু’টি টুইট করেছেন তিনি। যদিও সরাসরি বিহার নির্বাচন নিয়ে কিছু বলেননি কংগ্রেস (Congress) নেতা। একটিতে তিনি লেখেন, ‘‘আমেরিকায় যদি ইভিএমে ভোট হত তাহলে কি ট্রাম্প হারতেন?’’ তাঁর এমন প্রশ্ন থেকে পরিষ্কার, ইঙ্গিত কোনদিকে। এনডিএ’র জয় আঁচ করেই তোপ দাগা শুরু করে দিলেন তিনি। তার ঠিক আগেই আরও একটি টুইট করেন তিনি। সেখানেও তাঁকে প্রশ্ন করতে দেখা যায়, ‘‘যদি মঙ্গলগ্রহ ও চাঁদের দিকে যাওয়া উপগ্রহকে পৃথিবী থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়, তাহলে ইভিএমই বা হ্যাক করা যাবে না কেন?’’

[আরও পড়ুন: করোনাযুদ্ধে আরও এগিয়ে গেল ভারত, উল্লেখযোগ্য হারে কমল দৈনিক সংক্রমণ, মৃত্যু]

 

উদিতের এই দুই প্রশ্ন থেকে বুঝতে অসুবিধা হয় না, বিহার নির্বাচনে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ করছেন তিনি। ইভিএম নিয়ে এমন অভিযোগ অবশ্য আজকের নয়। বিভিন্ন সময়ে নির্বাচনে ইভিএম নিয়ে নানা অভিযোগ উঠেছে। মূল অভিযোগ অবশ্যই কারচুপির। যে কোনও বোতাম টিপলেই একটি নির্দিষ্ট দলে ভোট পড়ার অভিযোগ উঠেছে। গত বছর লোকসভা নির্বাচনের ফলপ্রকাশের পরই ইভিএম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন তৃণমূল নেত্রী ও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তিনি দাবি তুলেছিলেন, ইভিএম নয়, এবার থেকে ভোট করতে ব্যালট পেপারে। নির্বাচন কমিশন বারবার জানিয়েছে, ইভিএম হ্যাক করা সম্ভব নয়। এদিন আরও একবার তা স্পষ্ট করে দিয়েছে তারা। 

এবার বিহার নির্বাচনেও ইভিএমের দিকে অভিযোগের আঙুল ওঠা শুরু হয়ে গেল। শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত এনডিএ এগিয়ে রয়েছে ১২৭টি আসনে। ১০৬টি আসনে এগিয়ে রয়েছে মহাজোট।  

[আরও পড়ুন: ‘ওঁ’ আঁকা পাপোশ! পাকিস্তানের বাসিন্দার অভিযোগে আমাজন বয়কটের ডাক নেটিজেনদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement