১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আলিগড়ে মুসলিম যুবতীকে জোর করে ধর্মান্তরিত করার অভিযোগ, কাঠগড়ায় বিজেপি নেত্রী

Published by: Paramita Paul |    Posted: August 17, 2020 9:17 am|    Updated: August 17, 2020 9:17 am

Ex-BJP mayor accused of converting Muslim girls in Aligarh

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশে (Uttar Pradesh) ফের ‘লাভ জিহাদ’! তবে এবার উলটপুরাণ। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক যুবতী ধর্ম পরিবর্তন করে হিন্দু পরিবারের ছেলেকে বিয়ে করেছেন বলে খবর। এর পিছনে আলিগড়ের (Aligarh) বিজেপি প্রাক্তন মেয়র শকুন্তলা ভারতীর (Shakuntala Bharati)) মদত রয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন ওই যুবতীর পরিবারের সদস্যরা। তাঁদের অভিযোগ, বিজেপির (BJP) প্রাক্তন মেয়র জোর করে মেয়েটিকে ধর্মান্তরিত করেছেন। যদিও অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন শকুন্তলাদেবী।

আলিগড়ের সংখ্যালঘু পরিবারের মেয়ে গত ৭ আগস্ট থেকে নিখোঁজ ছিলেন। এরপরই তাঁর জামাইবাবু পুলিশের দ্বারস্থ হয়ে অভিযোগ করেন। বলেন, “মেয়েটি গয়না ও নগদ নিয়ে প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছে। বিজেপির প্রাক্তন মেয়র শকুন্তলা ভারতীই তাঁর শ্যালিকাকে লুকিয়ে রেখেছেন। তাঁরই মদতে ধর্মান্তরিত হয়ে শ্যালিকা এক হিন্দু ছেলেকে বিয়ে করেছেন।”  টুইটারে একই অভিযোগ করেছেন মেয়েটির দিদিও। তাঁর অভিযোগ, শকুন্তলা দেবী তাঁর বোনকে অপহরণ করে নিয়ে গিয়ে ধর্মান্তরিত করেছে। পরে এক হিন্দু পরিবারের ছেলের সঙ্গে জোর করে বিয়েও দিয়ে দিয়েছেন”। তাঁর আরও অভিযোগ, বোন নিখোঁজ হওয়ার পরই পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু পুলিশ তাঁদের অভিযোগ নিতে চায়নি। শেষ পর্যন্ত মিডিয়াকে জানানো ভয় দেখালে বোনকে খুঁজে আনে পুলিশ কর্মীরা। দেখা যায়, প্রাক্তন মেয়রের সঙ্গেই থানায় আসে তাঁর বোন। এরপরই মেয়েটির দিদির প্রশ্ন, “বিজেপির প্রাক্তন মেয়র কেন মুসলিমদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মাথা গলাচ্ছেন?”

[আরও পড়ুন : ‘‌বিজেপি মুসলিমদের শত্রু নয়’‌, গেরুয়া শিবিরে যোগ দিয়ে মন্তব্য শাহিনবাগের প্রতিবাদীর]

যদি্ও অপহরণ ও ধর্মান্তরিত করার অভিযোগ অস্বীকার করেছে খোদ সেই মেয়েটি। পুলিশকে তিনি জানিয়েছেন, “আমি এখন সাবালিকা। নিজের ইচ্ছেতেই আমি বিয়ে করেছি। আমাকে কেউ জোর করেনি। আমার দিদির সমস্ত অভিযোগ মিথ্যা। দিদি চায়না আমি শ্বশুরবাড়িতে থাকি।” অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিজেপির প্রাক্তন মেয়র শকুন্তলা ভারতীও। তাঁর কথায়, “আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ করতে পারলে, রাজ্য ছেড়ে চলে যাব।”

[আরও পড়ুন : এখনই মুক্তি নয়, জাতীয় নিরাপত্তা আইনে আরও তিনমাস জেলবন্দি থাকবেন কাফিল খান]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে