৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কৃষি আইন ছাড়া কৃষকদের আয় দ্বিগুণ হওয়া সম্ভব নয়! কেন্দ্রের হয়ে ব্যাটিং নীতি আয়োগের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 28, 2021 8:34 pm|    Updated: March 28, 2021 9:27 pm

An Images

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বাধীনতা দিবসের মঞ্চে দাঁড়িয়েই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) ঘোষণা করেছিলেন, ২০২২ সালের মধ্যে দেশের কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করতে চায় কেন্দ্র। শুধু এবছর নয়, গত বেশ কয়েক বছর ধরেই প্রধানমন্ত্রী-সহ কেন্দ্রের বহু মন্ত্রী দাবি করে আসছেন স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তিতে অর্থাৎ ২০২২ সালের মধ্যে দেশের কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করা হবে। কিন্তু কেন্দ্রের সেই দাবিতে কার্যত জল ঢেলে দিল নীতি আয়োগ (Niti Ayog)। তাঁরা বলছে, এখনই কৃষি আইন লাগু করা না গেলে আগামী বছরের মধ্যে কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করার যে লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে, সেটা পূরণ করা সম্ভব নয়।

রবিবার নীতি আয়োগের অন্যতম সদস্য রমেশ চাঁদ বলছিলেন,”জরুরি ভিত্তিতে কৃষি আইন কার্যকর (Citizenship Amendment Act) না করা হলে ২০২২ সালের মধ্যে কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করার লক্ষ্যে পৌঁছানো যাবে না। তাই কৃষকদের উচিত দ্রুত কেন্দ্রের সঙ্গে কথা বলে এই আইন কার্যকর করার ব্যাপারে ইতিবাচক ভাবনা চিন্তা শুরু করা।” নীতি আয়োগের ওই সদস্য বলছেন, কিছু দিলে কিছু পাওয়া যাবে, এই তত্ত্ব মেনে কাজ করতে হবে দুই শিবিরকেই। নিজেদের দাবিতে অনড় থেকে এখনও কোনও পক্ষেরই লাভ হয়নি। রমেশ চাঁদ বলছেন,”কৃষকদের ধারণা এই বিল আসলে রাজনৈতিক। ওরা এটাকে রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখছে। ওরা এই বিলটা (Farm Laws) ভাল করে খতিয়ে দেখুক। এবং তারপর আমাদের বলুক যে এই বিলটির এই শর্ত আমাদের স্বার্থের হানি করছে।” তাঁর সাফ কথা, যেভাবেই হোক দ্রুত কৃষি আইন কার্যকর করতেই হবে। নাহলে আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছানো অসম্ভব হয়ে দাঁড়াবে।

[আরও পড়ুন: ৫ রাজ্যে নির্বাচনের জন্যই পেট্রল-ডিজেলের দাম কমাচ্ছে কেন্দ্র, ফের সুর চড়ালেন রাহুল]

প্রসঙ্গত, কেন্দ্রের পাশ করানো তিনটি কৃষি আইনের বিরুদ্ধে গত কয়েক মাস ধরে লাগাতার আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। ২৬ মার্চও আইন বাতিলের দাবিতে ভারত বনধ ডেকেছিল কৃষক সংগঠনগুলি। আন্দোলনের বহর কমলেও কৃষকরা এখনও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। তাঁদের দাবি, আইন বাতিল না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন প্রত্যাহার করার প্রশ্নই ওঠে না। মূলত কৃষকদের আন্দোলনের চাপেই এই বিতর্কিত আইনগুলি কার্যকর করতে পারেনি সরকার। সুপ্রিম কোর্টও এই আইনগুলিতে সাময়িক স্থগিতাদেশ দিয়েছে। যার অর্থ, এখন কোনওভাবেই এই আইন (CAA) কার্যকর হচ্ছে না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement