১৪ মাঘ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

উত্তরপ্রদেশ থেকে দিল্লি পর্যন্ত মিছিলের জের, আখ চাষিদের ৫টি দাবি মানল কেন্দ্র

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: September 21, 2019 4:27 pm|    Updated: September 21, 2019 4:28 pm

Farmers from UP march towards Delhi to protest over agri crisis

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কৃষিঋণ মুকুব-সহ একাধিক দাবিতে উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুর থেকে নয়ডা পর্যন্ত মিছিল করলেন প্রায় ১৫,০০০ জন আখ চাষি। দিল্লি যাওয়ার কথা থাকলেও তাঁদের উত্তরপ্রদেশ-দিল্লি সীমান্তে অবস্থিত নয়ডাতেই আটকে দেয় পুলিশ। তবে তাঁদের ১১ জন প্রতিনিধির সঙ্গে কৃষি মন্ত্রকের বৈঠকের পর পাঁচটি দাবি মেনে নিয়েছে কেন্দ্র। মিছিলের জেরে দেশের রাজধানীতে আইনশৃঙ্খলা পরিণতির যাতে কোনও অবনতি না হয় তার দিকেও নজর রাখা হয়েছিল। এর জন্য প্রচুর নিরাপত্তারক্ষীকেও মোতায়েন করা হয়েছিল দিল্লি ও সংলগ্ন এলাকায়।

[আরও পড়ুন: পণের দাবিতে প্রাক্তন বিচারপতির বাড়িতে নিগৃহীত গৃহবধূ! ভাইরাল সিসিটিভি ফুটেজ]

ভারতীয় কিষাণ সংঘের নেতৃত্বে গত ১১ সেপ্টেম্বর উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুর থেকে পদযাত্রা শুরু করেন আখ চাষের সঙ্গে যুক্ত ওই চাষিরা। দিল্লির কিষাণ ঘাটে গিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে চান তাঁরা। তাঁদের প্রধান অভিযোগ, ঘোষণা করা হলেও এখনও পর্যন্ত কৃষিঋণের পুরো টাকা মকুব করা হয়নি। এছাড়া কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে যে দাবিগুলি তাঁরা রেখেছেন। তা হল- নদীর দূষণ বন্ধে কড়া পদক্ষেপ নিতে হবে। অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। ১৪ দিনের মধ্যে কৃষকদের বকেয়া অনুদানের টাকা দিতে হবে। চাষের জন্য দিতে হবে বিনামূল্যে বিদ্যুতও। প্রতিটি কৃষক পরিবারকে কৃষি বিমা প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। আর সেই সমস্ত কিছু কার্যকর করতে হবে স্বামীনাথন কমিশনের রিপোর্টের ভিত্তিতে। দেশে বিনামূল্যে শিক্ষা এবং ওষুধের ব্যবস্থা করতে হবে। সেই সঙ্গে জমি অধিগ্রহণ সংক্রান্ত সমস্যা যাতে একবারে মিটে যায় তার ব্যবস্থা করতে হবে।

এপ্রসঙ্গে ভারতীয় কৃষাণ সংঘের সহ-সভাপতি রাধে ঠাকুর বলেন, ‘হাজার হাজার চাষি এই ‘কিষাণ-মজদুর যাত্রা’ সাহারানপুর থেকে দিল্লি পর্যন্ত এ পদযাত্রায় অংশ নিয়েছেন। আসলে চাষিদের অবস্থা খুবই ভয়ানক হয়ে পডেছে। অর্থনৈতিক মন্দার সঙ্গে লড়াই করতে হচ্ছে তাঁদের। আর ঠিক এমন সময়ই ঘুমোচ্ছে সরকার। আখ চাষিরা সময়মতো টাকা পাচ্ছেন না। এদিকে উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকার ক্রমশ বিদ্যুতের দাম বাড়াচ্ছে ফলে চাষিদের বাধ্য হয়ে আত্মহত্যা করতে হচ্ছে।’

[আরও পড়ুন: পুজোর পরই ২ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন, দিনক্ষণ ঘোষণা করল কমিশন]

এই সংগঠনের সভাপতি পূরাণ সিং বলেন, ‘আমাদের ১১ জন প্রতিনিধি কৃষি মন্ত্রকের সঙ্গে আলোচনার জন্য গিয়েছিলেন। সেখানে আমাদের ১৫টি দাবির মধ্যে পাঁচটি মানতে রাজি হয়েছে। তাই আন্দোলন সাময়িক ভাবে স্থগিত রাখা হচ্ছে। তবে ১০ দিন বাদে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে ফের বাকি দাবিগুলি পূরণের আবেদন জানাব আমরা। তখন সরকার যদি আমাদের সব দাবি মেনে তাহলে আন্দোলন বন্ধ করে দেওয়া হবে। আর তা না হলে সাহারানপুর থেকে ফের শুরু হবে আমাদের আন্দোলন।’

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে