১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সুইসাইড নোট লিখিয়ে দুই মেয়েকে খালে ফেলে দিল বাবা-মা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 3, 2017 12:17 pm|    Updated: March 3, 2017 12:17 pm

Father pushed girls into canal, forced them to write suicide note

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মেয়েরা কথা শোনে না৷ রাতবিরেতে পুরুষ বন্ধুর সঙ্গে বেরিয়ে যায়৷ তাই সম্মান রক্ষার জন্য দুই কিশোরী মেয়েকে খালে ঠেলে ফেলে দিল বাবা-মা৷ ঘটনাটি ঘটেছে পাঞ্জাবের লুধিয়ানায়৷ দুই মেয়ে প্রীতি (১৬) ও জ্যোতিকে (১৫) স্থানীয় সিধওয়ান খালে ঠেলে ফেলে দেয় বাবা উদয় চন্দ ও মা লক্ষ্মী৷ ঘটনায় প্রীতি প্রাণে বেঁচে গেলেও মৃত্যু হয়েছে জ্যোতির৷

ভাইরাল শহিদ কন্যা গুরমেহরের উল্লাসের ভিডিও

পুলিশের জেরার মুখে গোটা ঘটনার দায় স্বীকার করেছে লক্ষ্মী৷ তাঁর কথায়, দুই বছর ধরেই মেয়েরা উচ্ছন্নে গিয়েছিল৷ তাও রগচটা উদয়কে তেমন কিছু জানতে দেয়নি সে৷ কিন্তু সোমবার রাত সাড়ে বারোটা নাগাদ যখন তারা ঘুমিয়ে ছিলেন এই ভেবে যে মেয়েরা জেগে পড়াশোনা করছে, এক প্রতিবেশী এসে খবর দেয় যে, জ্যোতি-প্রীতি পুরুষ বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়ে গিয়েছে৷ ভোররাত তিনটে নাগাদ যখন দুই বোন ফিরে আসে৷ প্রচুর বকাবকি ও মারধর করা হয় তাদের৷ প্রশ্ন করা হয় কোথায় গিয়েছিল তারা৷ কিন্তু কেউ সেই প্রশ্নের উত্তর দেয়নি৷ তখনই উদয় তাদের খালের জলে ফেলে দেওয়ার হুমকি দেয়৷ তাতেও কাজ না হওয়ায় সত্যি নিজের মেয়েদের হাত-পা বেঁধে খালে ফেলে দেয় উদয়-লক্ষ্মী৷ তার আগে দুই মেয়েকে দিয়ে সুইসাইড নোটও লিখিয়ে নেয়৷ হাসপাতাল থেকে জবানবন্দি দেওয়া প্রীতির কথায়, খালে ফেলার আগে মাদকও খাওয়ানো হয়েছিল তাদের৷

‘ঐতিহাসিক’ স্বাস্থ্য বিলে রোগীর স্বার্থে কী প্রস্তাব মুখ্যমন্ত্রীর?

সকালের পথচারীরা দুই বোনকে জল থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন৷ সেখানেই জ্যোতির মৃত্যু হয়৷ প্রাণে বেঁচে যায় প্রীতি৷ ঘটনার পর থেকেই পলাতক উদয় চন্দ৷ তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷ বৃহস্পতিবার গোটা ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে দুই দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে লক্ষ্মীকে৷ হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে জলন্ধরের নারী নিকেতনে ঠাঁই হয়েছে প্রীতির৷ এতকিছু পরও অবশ্য বাবা-মাকে গারদের পিছনে দেখতে চায় না সে৷

মাওবাদীদের সঙ্গে সংঘর্ষে শহিদ দুই জওয়ান

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে