Advertisement
Advertisement
এনআরসি তালিকা অনলাইনে

সরকারি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এনআরসি-র পূর্ণাঙ্গ তালিকা, নামের পাশে স্টেটাস উল্লেখ

nrcassam.nic.in - এই ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে পূর্ণাঙ্গ তালিকা।

Full list of NRC, Assam has been published in Govt website
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:September 14, 2019 2:10 pm
  • Updated:September 14, 2019 2:10 pm

মনিশংকর চৌধুরি: অসমে নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হল অনলাইনে। সেখানে আবেদনকারী প্রায় তিন কোটি তিরিশ লক্ষ মানুষের নাম দিয়ে, তার পাশে তাঁদের স্টেটাস স্পষ্ট করা হয়েছে। অর্থাৎ এনআরসি তালিকায় কার আবেদন গৃহীত হয়েছে বা কার নাম বাদ গিয়েছে, তা বিস্তারিতভাবে জানানো হয়েছে।আবেদনকারীদের সমস্ত সংশয় দূর করার জন্য সরকারি ওয়েবসাইটে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। nrcassam.nic.in – এই ওয়েবসাইটের তালিকা দেখে প্রত্যেক আবেদনকারী নিজেদের অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে যাবেন।

[আরও পড়ুন: গণধর্ষণের পর নগ্ন অবস্থায় আধ কিলোমিটার রাস্তা দৌড় কিশোরীর]

সীমান্ত রাজ্য অসমে অনুপ্রবেশ রুখতে এনআরসি-র প্রস্তুতির কথা জানতে পেরেই নিজেদের নাগরিকত্ব প্রমাণে আবেদন করেছিলেন প্রায় তিন কোটি ৩০ লক্ষ অসমবাসী। ১৯৭১এর মার্চের আগে, বাংলাদেশ ভাগ হওয়ার আগে ভারতে যাঁরা এসেছেন, তাঁদের এর আওতায় আনা হয়েছে। দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাঁদের সকলের নথিপত্র যাচাই করে, গত ৩১ আগস্ট জাতীয় নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করে এনআরসি কো-অর্ডিনেটর প্রতীক হাজেলা নেতৃত্বাধীন কমিটি। তাতে দেখা গিয়েছে, ১৯ লক্ষ নাম বাদ গিয়েছে। অর্থাৎ এই ১৯ লক্ষ মানুষ নিজেদের নাগরিকত্ব প্রমাণে ব্যর্থ হয়েছেন। যাঁদের মধ্যে আবার ১২ লক্ষই হিন্দু বাঙালি। এনিয়ে রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভের পারদ চড়েছে অনেকটাই। যাদের দাবি মেনে এনআরসি-র প্রক্রিয়ায় কেন্দ্র সায় দিয়েছে, সেই অল অসম স্টুডেন্টস ইউনিয়নই খুশি নয় এই তালিকায়। এনিয়ে অন্তর্দ্বন্দ্ব রয়েছে রাজ্য বিজেপির অন্দরেই। অনেকেই অভিযোগ করছেন, কো-অর্ডিনেটর প্রতীক হাজেলা পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে কাজ করেছেন।
তালিকায় কাদের নাম আছে আর কারা বাদ গিয়েছেন, এবিষয়ে প্রতীক হাজেলার কাছে বিস্তারিতভাবে জানতে চেয়েছিল অসম প্রশাসন। তবে সেই মুহূর্তে বিস্তারিত তালিকাটি সরকারের হাতে তুলে দিতে পারেননি তিনি। এবার nrcassam.nic.in ওয়েবসাইটে তালিকাটি প্রকাশ করে সরকারিভাবেই নথিটি অসমবাসীর সামনে আনা হল। এটিই সরকারি তালিকা হিসেবে ধরা হচ্ছে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: সীমান্তে সেনার দেহ উদ্ধার করতে ভারতের কাছে আত্মসমর্পণ পাকিস্তানের, ভাইরাল ভিডিও]

বাদ যাওয়া নাগরিকদের কাছে অবশ্য এখনও কিছুটা সুযোগ রয়েছে। রাজ্যজুড়ে হাজার খানেক ফরেনার্স ট্রাইবুনালে গিয়ে আবারও নিজেদের নথিপত্র পেশ করে নাগরিকত্বের পরীক্ষায় পাশ করা। তবে তাও অনেকটাই ঝক্কির বিষয়। এতেও যদি নিজেদের ভারতীয় নাগরিক বলে প্রমাণে ব্যর্থ হন কেউ, তাহলে তাঁর ঠাঁই হবে ডিটেনশন ক্যাম্পে। এনআরসি তালিকা প্রকাশের পর থেকেই অসমের গোয়ালপাড়ায় বর্তমানে থাকে ডিটেনশন ক্যাম্পগুলি সম্প্রসারণের কাজ শুরু হয়েছে।

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ