BREAKING NEWS

১৭ ফাল্গুন  ১৪২৭  বুধবার ৩ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ফেসবুকে বন্ধুত্বের ফাঁদ পেতে যুবতীকে অপহরণ ও ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২ অভিযুক্ত

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 22, 2019 7:30 pm|    Updated: April 22, 2019 7:30 pm

An Images

ছবিটি প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিনি ডিজিটাল ডেস্ক: ফেসবুকে গুরগ্রামের বাসিন্দা ২৮ বছরের গবেষক নিশি(নাম পরিবর্তিত)-র সঙ্গে বন্ধুত্ব হয়েছিল উত্তরপ্রদেশের বাগপতের যুবক বিপিনের। বছর খানেকের বন্ধুত্ব ঘনিষ্ঠতায় পরিণত হওয়ার পর গত ১৭ এপ্রিল যুবতীকে গুরুগ্রামের একটি শপিংমলে দেখা করতে বলে সে। কিন্তু, সেখানে যাওয়ার পর মাথায় বন্দুকের নল ঠেকিয়ে বিপিন ও তার তিনসঙ্গী প্রথমে তাঁকে অপহরণ করে। পরে গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। রবিবার সন্ধ্যায় বাগপত থানায় অভিযোগ জানাতে যান ওই যুবতী। তার ভিত্তিতে দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হলেও বাকি দুজন এখনও পলাতক।

[আরও পড়ুন- আদিবাসীদের জমি কেড়ে নেওয়ার জবাব পাবে বিজেপি, দাবি আহমেদ প্যাটেলের]

নির্যাতিতার অভিযোগ, মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে গুরগ্রামের শপিংমল থেকে প্রথমে তাকে অপহরণ করে বিপিন ও তার সঙ্গীরা। নিয়ে যায় উত্তরপ্রদেশের বারাউট এলাকায় থাকা একটি শুটিং স্পটে। সেখানে তাঁকে প্রথমে অর্ধনগ্ন করে নাচানো হয়। পরে বাগপতের বিনাউলি এলাকায় একটি বাড়িতে নিয়ে গিয়ে জোর করে মাদক মেশানো পানীয় খাইয়ে মেয়েটিকে গণধর্ষণ করে অভিযুক্তরা। সারারাত ধরে অত্যাচার চালানোর পর, পরদিন গুরগ্রামের ওই শপিংমলে তাঁকে নামিয়ে দিয়ে যায় ধর্ষকরা। তবে, যাওয়ার আগে ৩০ লক্ষ টাকা না দিলে বিষয়টি প্রকাশ্যে নিয়ে আসারও হুমকি দেয়।

[আরও পড়ুন-‘রাফালে নিয়ে ভুল বলেছিলাম’, সুপ্রিম কোর্টে স্বীকারোক্তি রাহুলের]

কিছুটা সুস্থ হতেই রবিবার সন্ধ্যায় বাঘপত থানায় এসে বিপিন তোমর, আশিস বালিয়ান, তরণজিত্‍‌ ও অমিত মুঞ্জলের বিরুদ্ধে দায়ের করে ওই যুবতী। তদন্তে নেমে বিপিন ও আশিসকে গ্রেপ্তার করলেও তরণজিত্‍‌ আর অমিত এখনও পলাতক। এপ্রসঙ্গে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রণবিজয় সিং জানান, অভিযুক্ত চারজনের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের পাশাপাশি অপহরণ-সহ অন্য ধারাতেও মামলা দায়ের করা হয়েছে। মেয়েটির মেডিক্যাল পরীক্ষা হলেও এখন পর্যন্ত ধর্ষণের কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাই সংগ্রহীত নমুনা ফরেনসিক ল্যাবে আরও পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। কয়েকদিন বাদে রিপোর্ট পাওয়া যাবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement