BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘রামবিলাসের মৃত্যুতে চিরাগের ভূমিকা সন্দেহজনক’, তদন্ত চেয়ে মোদিকে চিঠি জিতেন রাম মাঝির

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 2, 2020 4:30 pm|    Updated: November 10, 2020 12:12 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাত পোহালেই বিহারে দ্বিতীয় দফার নির্বাচন। এই দফাতেই নির্ধারিত হয়ে যাবে আগামী পাঁচ বছর কে থাকবে রাজ্যের ক্ষমতার মসনদে? ঠিক তার আগেই রামবিলাস পাসোয়ানের (Ram Vilas Paswan) মৃত্যু ঘিরে জোর তরজা শুরু।

প্রয়াত কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর মৃত্যুর বিচারবিভাগীয় তদন্ত চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন জিতেন রাম মাঝির হিন্দুস্থানি আওয়াম মোর্চা (HAM)। তাঁদের মতে, এলজেপি (LJP) নেতার মৃত্যুর পিছনে  রহস্য রয়েছে। এক্ষেত্রে ছেলে চিরাগ পাসোয়ানের ভূমিকাও সন্দেহজনক বলে দাবি করছেন তিনি। যদিও বাবার মৃত্যু নিয়ে স্রেফ রাজনীতি করা হচ্ছে বলে পালটা অভিযোগ করেছেন চিরাগ (Chirag Paswan)।

[আরও পড়ুন : ‘বিজেপির হাত ধরার আগে রাজনীতি ছাড়ব’, আচমকাই অবস্থান বদল মায়াবতীর]

বিহারের (Bihar) রাজনীতিতে অন্যতম নাম রামবিলাস পাসোয়ান। রাজনৈতিক মহলের কথায়, রাজনীতির হাওয়া আগেভাগেই বুঝতে পারতেন তিনি। গত ৮ অক্টোবর প্রয়াত হন তিনি। কয়েক সপ্তাহ ধরেই গুরুতর অসুস্থ ছিলেন এলজেপির এই নেতা। শেষ পর্যন্ত তাঁকে আর বাঁচানো সম্ভব হয়নি। উল্লেখ্য, তাঁর প্রয়াণের আগেই দলের দায়িত্ব নেন ছেল চিরাগ। নীতীশের বিরোধিতা করে জোট বিহারে এনডিএ জোট ভেঙেছেন তিনি। যদিও নিজেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Narendra Modi) অনুগত বলেই প্রচার করেন চিরাগ।

এদিকে রামবিলাস পাসোয়ানের মৃত্যুতে চিরাগের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে এনডির শরিক জিতেনরাম মাঝির দল। HAM-এর নেতার কথায়, বাবার মৃত্যুর পর হাসিমুখে চিরাগকে ভিডিও শুট করতে দেখা গিয়েছে। যা মোটেও স্বাভাবিক নয়। এরপরই প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেন তিনি। সেই চিঠিতে বেশকিছু প্রশ্ন তুলেছেন জিতেনরাম মাঝি।
এক, কার নির্দেশে হাসপাতাল থেকে রামবিলাস পাসোয়ানের মেডিক্যাল বুলেটিন দেওয়া হত না?
দুই, কেন তাঁর সঙ্গে মাত্র তিনজনকেই দেখা করতে দেওয়া হয়েছিল?

[আরও পড়ুন : মথুরার মন্দিরে নমাজ পড়ার জের, FIR চার ব্যক্তির নামে]

এই ঘটনায় হিন্দুস্থান আওয়াম মোর্চা  ক্ষুব্ধ রামবিলাস পুত্র চিরাগ পাসোয়ান। তাঁর বাবার মৃত্যু নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন। তাঁর কথায়, “কেন বাবা হাসপাতালে ভরতি থাকাকালীন মাঝিজি উদ্বেগ প্রকাশ করেননি? মৃত ব্যক্তিকে নিয়ে সবাই রাজনীতি করছেন। উনি বেঁচে থাকাকালীন কেন কেউ বিন্দুমাত্র চিন্তা করেননি?” সবমিলিয়ে রামবিলাসের মৃত্যু ঘিরে বিহারে দ্বিতীয় দফা নির্বাচনের আগে জমজমাট নির্বাচনী (Bihar Elcetion 2020) লড়াই।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement