BREAKING NEWS

২৬ চৈত্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৯ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

‘আমাকে গুলি করতে পারত’, বন্দুকবাজের সামনে অকুতোভয় ছিলেন পুলিশকর্মী

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 26, 2020 4:45 pm|    Updated: February 26, 2020 5:11 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উলটো দিক থেকে ঝাঁকে-ঝাঁকে ইট উড়ে আসছে। আর ঠিক চোখের সামনে থেকে বন্দুক উঁচিয়ে আস্ফালন করছে এক যুবক। বলা ভাল, ওই পাথরবাজদের কার্যত সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছে। তাদের উলটোদিকে আতঙ্কে কাঁপতে কাঁপতে দাঁড়িয়ে নির্দোষ কিছু সাধারণ মানুষ। আর এই দু’পক্ষের ঠিক মাঝখানে লাঠি হাতে প্রতিরোধ গড়া আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন এক পুলিশ কর্মী। 

গত সোমবার উত্তর-পূর্ব দিল্লির অশান্তির শুরুতেই এই ছবি দেখে স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছিল গোটা দেশ। মেরুন শার্ট পরিহিত শাহরুখের বন্দুক হাতে আস্ফালনের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। জাফরাবাদ এলাকায় এলোপাথারি গুলি চালিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছিল ওই দুষ্কৃতী। পরে আবশ্য পুলিশে জালে ধরাও পরে যায়। কিন্ত সেদিন আমজনতাকে বাঁচিয়ে হিরো হয়েছিলেন দিল্লি পুলিশের কনস্টেবল দীপক দাইয়াহা। এবার সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সেদিনের সেই ভয়ংকর অভিজ্ঞতার কথা শোনালেন দিল্লির ওই পুলিশ কর্মী।

[আরও পড়ুন : ‘যাঁরা ভারত মাতার জয় বলবেন তাঁরাই দেশে থাকবেন’, মন্তব্য হিমাচলের মুখ্যমন্ত্রীর]

তাঁর কথায়, “ওই যুবক বন্দুক হাতে আমার দিকে তেড়ে আসতেই আমি ওকে সতর্ক করেছিলাম।তখন আমার পিছনে বহু নির্দোষ মানুষ দাঁড়িয়ে। বন্দুকবাজের পিছন থেকে একদল উন্মত্ত জনতা ক্রমাগত পাথর ছুঁড়ছিল। এদিকে প্রত্যেককে বাঁচানোর দায়িত্ব ছিল আমার কাঁধে। বারবার ওই যুবককে সাবধান করছিলাম, যাতে কারোর গুলি না লাগে।” 

ভয় করছিল না? সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে দীপক জানান, “যে কোনও মুহূর্তে ও আমার উপর গুলি চালাতে পারত। কিন্তু আমার প্রাথমিক দায়িত্ব ছিল বাকিদের বাঁচানো।” ওই পুলিশ কর্মী আরও জানান, “যুবকটি ক্রমাগত গুলি চালাচ্ছিল। আর তার পিছন থেকে উন্মত্ত জনতা পাথর ছুঁড়ছিল। আমার পিছনে তখন কয়েক শো নির্দোষ জনতা দাঁড়িয়ে। ছেলেটিকে বোঝাচ্ছিলাম, যাতে সে কোনওভাবেই যেন জনতার দিকে গুলি না ছোঁড়ে। এমনকী লাঠি দিয়ে ওকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করেছি।” দীপক আরও বলেন, “ছেলেটি সামনে থেকে সরে যেতেই সাধারণ মানুষকে ওর ফায়ারিং রেঞ্জ থেকে সরিয়ে দিই। ছোঁড়া পাথরের আঘাতও যাতে না লাগে তার জন্যও সচেষ্ট ছিলাম।”

[আরও পড়ুন : শান্তি ও ভ্রাতৃত্ব বজায় রাখুন’, দিল্লির হিংসা নিয়ে দেশবাসীকে বার্তা উদ্বিগ্ন প্রধানমন্ত্রীর]

সোমবার সকাল থেরে মউজপুরের কাছে কবীর নগরে উত্তেজনা ছড়ায়। এমনকী দিল্লি পুলিশের সামনেই বন্দুক হাতে নিয়ে আস্ফালন করতে দেখা যায় এক যুবককে। যদিও সে CAA সমর্থক নাকি বিক্ষোভকারী—সে ব্যাপারে এখনও স্পষ্ট জানা যায়নি। এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে ১৪৪ ধারা জারি করেছে দিল্লি পুলিশ। প্রয়োজনে আরও কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement