১৯  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৫ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রাহুলের ‘নীতি-আদর্শ’ মন্তব্যে ক্ষোভে ফুঁসছে বিজেপি বিরোধী আঞ্চলিক দলগুলি

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: May 16, 2022 9:32 pm|    Updated: May 16, 2022 9:32 pm

How are we running party without any ideology: Regional leaders question Rahul | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘আঞ্চলিক দলগুলির কোনও নীতি বা আদর্শ নেই।’ চিন্তন শিবিরে এমনটাই মন্তব্য করেছিলেন রাহুল গান্ধী। আর তাতেই ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে বিজেপি বিরোধী আঞ্চলিক দলগুলি। কংগ্রেসকে পালটা দিয়ে তাদের প্রশ্ন, ‘নীতি-আদর্শ ছাড়াই আমরা এতদিন দল চালাচ্ছি নাকি?’

[আরও পড়ুন: ইউক্রেন যুদ্ধের জেরেই মূল্যবৃদ্ধি, ফের রেপো রেট বাড়ানোর ভাবনা রিজার্ভ ব্যাংকের]

গত শুক্রবার অর্থাৎ ১৩ মে রাজস্থানের উদয়পুরে শুরু হয় কংগ্রেসের চিন্তন শিবির। চলে ১৫ মে পর্যন্ত। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে দলের কার্যপন্থা স্থির করে পরিকাঠামোয় প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনার নকশা ছকে ফেলাই নকি ওই শিবিরের উদ্দেশ্য। কিন্তু সেই প্রয়াস কতটা সফল হয়েছে তা নিয়ে শঙ্কা থাকলেও ‘নীতি-আদর্শ’ মন্তব্যে বিতর্ক উসকে দিয়েছেন রাহুল গান্ধী। রবিবার চিন্তন শিবিরের তৃতীয় দিনে রাহুল গান্ধী দাবি করেন, বিজেপিকে হারাতে পারে একমাত্র কংগ্রেসই। কোনও আঞ্চলিক দল নয়। বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইটা আদর্শের। আর আঞ্চলিক দলগুলির কোনও আদর্শ নেই। বিজেপিকে (BJP) হারাতে হলে তাই কংগ্রেসকে কংগ্রেসের মতো করেই লড়তে হবে। মানুষের কাছে যেতে হবে।

এদিকে, রাহুলের বক্তব্যের পরই একের পর এক কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস, আরজেডি, জেএমএম-সহ একাধিক বিজেপি বিরোধ অঞ্চলিক দল। এদিন রাহুলের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন লালুপ্রসাদ জাদবের দল আরজেডি। দলের মুখপাত্র মনোজ কুমার ঝার কথায়, “গত নির্বাচনগুলিতে আঞ্চলিক দলগুলি বিজেপির বিরুদ্ধে যেভাবে লড়াই করেছে তা দেখুন রাহুল গান্ধী। তাঁর বক্তব্য কংগ্রেসের অবস্থানের সঙ্গে মিলছে না।” রাহুলের মন্তব্যে ক্ষোভপ্রকাশ করেছে ইউপিএ-র শরিক দল জেএমএম। মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের নেতৃত্বে ঝাড়খণ্ডে ক্ষমতার থাকা দলটির বক্তব্য, “নিজের মত প্রকাশ করার স্বাধীনতা আছে রাহুল গান্ধীর। কিন্তু নীতি-আদর্শ নিয়ে এমন মন্তব্য করার অধিকার তাঁকে কে দিয়েছে। নীতি-আদর্শ ছাড়াই আমরা এতদিন দল চালাচ্ছি নাকি?” তৃণমূলের (TMC) মুখপত্র ‘জাগো বাংলা’য় প্রকাশিত সম্পাদকীয়তে লেখা হয়েছে – “কংগ্রেসই যে বিজেপির আসল বিরোধী, সেটা এখন আর মানুষ বিশ্বাস করেন না। মানুষ নিজের অভিজ্ঞতা দিয়ে বুঝেছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখন বিরোধী মুখ। রাজ্যে রাজ্যে কংগ্রেস কার্যত অপাংক্তেয়।”

উল্লেখ্য, ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনে (2024 lok Sabha Election) বিভিন্ন রাজ্যে আঞ্চলিক দলের সঙ্গে জোট করে লড়াই করা উচিত কংগ্রেসের। দিন কয়েক আগেই প্রশান্ত কিশোর কংগ্রেস হাই কমান্ডকে এই পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু রাহুল সেই পরামর্শ কার্যত উড়িয়ে দিলেন। রাহুলের (Rahul Gandhi) সাফ কথা, কোনও আঞ্চলিক দল বিজেপিকে হারাতে পারবে না। ফলে প্রশ্ন উঠছে কংগ্রেসের নেতৃত্বে আঞ্চলিক দলগুলিকে নিয়ে বিজেপি বিরোধী কোনও জোট কি আদৌ সম্ভব?

[আরও পড়ুন: বারাণসীতে বঙ্গভবন বানাতে চায় রাজ্য, যোগী প্রশাসনের কাছে নিয়মকানুন জানতে চাইল নবান্ন]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে