৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সাহসিকতাকে কুর্নিশ, বীরচক্র সম্মানে ভূষিত হতে পারেন অভিনন্দন

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 21, 2019 10:23 am|    Updated: April 21, 2019 10:23 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের আবহে শিরোনামে উঠে এসেছিলেন ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান৷ যে কোনও পরিস্থিতিতে শক্ত থেকে কীভাবে নিজের দায়িত্বে অবিচল থাকতে হয়, তাই করে দেখিয়েছিলেন তিনি৷ তাঁর অদম্য জেদ এবং সাহসিকতায় আপ্লুত ভারতবাসী৷ উইং কমান্ডারই ভূষিত হতে পারেন বীরচক্র সম্মানে৷

[ আরও পড়ুন: ভোটে জিতলে অর্ধেক করে দেওয়া হবে মদের দাম, প্রতিশ্রুতি ইস্তেহারে]

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি তুষারাবৃত উপত্যকা রক্তে লাল হয়ে উঠেছিল৷ পাকিস্তানি আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় পুলওয়ামায় শহিদ হন চল্লিশেরও বেশি ভারতীয় সিআরপিএফ জওয়ান৷ শহিদের রক্তে ক্ষোভ তৈরি হয় ভারতবাসীর মনে৷ প্রতিহিংসার আগুনে জ্বলে ওঠেন সকলেই৷ পুলওয়ামায় হামলার ঠিক বারোদিনের মাথায় বোমারু যুদ্ধবিমান মিরাজ-২০০০ এর মাধ্যমে আকাশপথে পাকিস্তানের বালাকোটে হামলা চালায় ভারতীয় বায়ুসেনা৷ ধ্বংস করে দেওয়া হয় বেশ কয়েকটি জঙ্গিঘাঁটি৷ তবে তাতেও শিক্ষা হয়নি পাকিস্তানের৷ তার ঠিক পরেরদিনই আকাশপথে ভারতকে আক্রমণের চেষ্টা করে পাকিস্তান৷ তার যোগ্য জবাব দেয় ভারত৷ ধাওয়া করে পাকিস্তানের এফ-১৬ বিমান গুলি করে নামান ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান৷ যদিও সীমানা পেরিয়ে ঢুকে যাওয়ায় পাকিস্তান অভিনন্দনকে বন্দি করে৷ কূটনৈতিক চাপের কাছে মাথানত করে অভিনন্দনকে ভারতে ফেরাতে বাধ্য হন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান৷ তবে যুদ্ধের আবহে শত্রুপক্ষের হাতে ধরা পরেও দাঁতে দাঁত চেপে নিজের দায়িত্ব পালন করেছেন অভিনন্দন৷ তাই তাঁকে নিয়ে গর্বিত গোটা দেশ৷ অদম্য সাহসিকতার কথা মাথায় রেখে অভিনন্দন বর্তমানকে বীরচক্র সম্মানে ভূষিত করার কথা ভাবা হচ্ছে৷

[ আরও পড়ুন: ফোনের ওপারে চিকিৎসক, নির্দেশ মেনে ভোটকর্মীর প্রাণ বাঁচালেন জওয়ান]

দেশে ফিরে আসার পর মেরুদণ্ডে চোট, পাঁজরের হাড়ে চিড় নিয়ে বেশ কয়েকদিন হাসপাতালে ভরতি ছিলেন অভিনন্দন বর্তমান৷ সেনা হাসপাতালে চিকিৎসকদের থেকে ছাড়পত্র পাওয়ার পরই শ্রীনগরের বায়ুসেনার স্কোয়াড্রনে যোগ দেন তিনি। ককপিটের প্রতি তাঁর আকর্ষণ যে কত তা স্বীকার করে নিয়েছেন বায়ুসেনার উচ্চপদস্থ আধিকারিকরাও৷ খুব শীঘ্রই ককপিটে ফিরতে চলেছেন বায়ুসেনার উইং কমান্ডার। শ্রীনগর স্কোয়াড্রন থেকে নতুন কোনও কর্মক্ষেত্রে যোগ দেবেন অভিনন্দন। গোপনীয়তা ও সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই আপাতত সেই জায়গার নাম প্রকাশ্যে আনা হয়নি৷ তবে শোনা যাচ্ছে, ওয়েস্টার্ন সেক্টর অর্থাৎ পাক সীমান্ত লাগোয়া এলাকার এয়ারবেসেই তাঁকে পাঠানো হতে পারে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement