BREAKING NEWS

৩১ আশ্বিন  ১৪২৮  সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বেসরকারি ল্যাবে বাড়তে পারে করোনা পরীক্ষার খরচ! আইসিএমআরের চিঠিতে বিতর্ক

Published by: Paramita Paul |    Posted: May 27, 2020 12:49 pm|    Updated: May 27, 2020 2:14 pm

ICMR removes cap of RS 4,500 for Covid-19 RT-PCR tests

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাড়তে পারে করোনা পরীক্ষার খরচ। বেসরকারি ল্যাবে এই পরীক্ষার সর্বোচ্চ খরচ বেঁধে দিয়েছিল আইএমআর (ICMR)। বুধবার চিঠি দিয়ে সেই নির্দেশ প্রত্যাহার করল। ফলে রাজ্যগুলির সঙ্গে আলোচনা করে এই পরীক্ষার খরচ নির্ধারণ করতে পারবে। আইএমআরের এই পদক্ষেপে চিন্তায় আমজনতা। তবে আইএমআরের দাবি, আগে বিদেশ থেকে পরীক্ষার কিট আমদানি করা হত। কিন্ত এখন এই কিট দেশেই তৈরি হচ্ছে। ফলে খরচ বেশকিছুটা কমতে পারে। তাই পুরনো নির্দেশিকা বাতিল করা হল।

লকডাউনের নিয়মাবলি শিথিল করা হয়েছে। তার মধ্যে দেশজুড়ে তাণ্ডব চালাচ্ছে নোবেল করোনা ভাইরাস। সরকারি হিসাব বলছে, দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৫১ হাজার ৭৬৭ জন। সংক্রমণের নিরিখে ভারত বিশ্বের মধ্যে দশম স্থানে রয়েছে। মৃতের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৪৩৩৭ জন।  এখনও পর্যন্ত ৬৪ হাজার ৪২৫ জন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। বিশেজ্ঞরা বলছেন, লকডাউনে ফল মিলবে না। প্রয়োজন প্রচুর পরীক্ষা। তাই রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে বাড়ছে করোনা পরীক্ষার হার। এমন অবস্থায় এই পদক্ষেপ করল আইসিএমআর।

[আরও পড়ুন : বেসুরো জোটসঙ্গীরা! সরকার বাঁচাতে জরুরি বৈঠক ডাকলেন নাজেহাল উদ্ধব]

বুধবার ICMR-এরের তরফে লেখা চিঠিতে বলা হয়, বেসরকারি ল্যাবে আরটি-পিসিআর (RT-PCR) পরীক্ষার সর্বোচ্চ খরচ ৪৫০০ টাকা বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। এখন তা প্রত্যাহার করা হচ্ছে। রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির সঙ্গে কথা বলে করোনা পরীক্ষার জন্য অনুমোদনপ্রাপ্ত বেসরকারি ল্যাবগুলি এই মূল্য নির্ধারণ করতে পারবে। রাজ্যও এই খরচ বেঁধ দিতে পারে। এ প্রসঙ্গে আইসিএমআরের ডিরেক্টর জেনারেল ডা. বলরাম ভার্গব বলেন, “প্রথম দিকে বিদেশ থেকে এই পরীক্ষার কিটগুলি আমদানি করা হচ্ছিল। সেদিকে নজর রেখেই সর্বোচ্চ খরচ বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বিদেশের উপর নির্ভরশীলতা কমেছে। পরীক্ষার পরিকাঠামো উন্নত হয়েছে। দেশেও এই কিট তৈরি হচ্ছে। ফলে এখন আর সর্বো্চ্চ খরচ বেঁধে দেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না।” প্রসঙ্গত, গত এপ্রিল মাসে কর্ণাটক সরকার এই খরচ কমিয়ে আড়াই হাজার টাকা বেঁধে দেয়। ফলে রাজ্য সরকারের উপযুক্ত নজরদারি থাকলে আইসিএমআরের সিদ্ধান্তে আখেরে লাভ হবে আম জনতারই, মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

[আরও পড়ুন : প্রকৃতির রোষ অব্যাহত, দাউদাউ করে জ্বলছে উত্তরাখণ্ডের বনভূমি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement