১১ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৭১তম সাধারণতন্ত্র দিবসে কেরলের সমস্ত মসজিদ উত্তোলন করা হল তেরঙ্গা পতাকা। দেশের ইতিহাসে এই প্রথম এই ঘটনা ঘটল। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করার পাশাপাশি রাজ্যের প্রতিটি মসজিদে ভারতীয় সংবিধানের প্রস্তাবনাও পাঠ করা হয়েছে। দেশের ঐক্য ও সৌভ্রাতৃত্বকে সুদৃঢ় করার জন্যই এবার অভিনব এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে ঈশ্বরের আপন রাজ্য হিসেবে পরিচিত কেরলে।

দেশব্যাপী যখন CAA ও NRC নিয়ে বিক্ষোভ হচ্ছে। বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবাদের নামে তাণ্ডব চালাচ্ছেন বিক্ষোভকারীরা। পালটা গুলি চালিয়ে ৩০ জনকে মেরে ফেলেছে বিভিন্ন রাজ্যের পুলিশ। ঠিক তখনই রাজ্যের প্রতিটি মসজিদে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও ভারতীয় সংবিধানের প্রস্তাবনা পাঠ করার নির্দেশ দিয়েছে কেরল স্টেট ওয়াকফ বোর্ড। ২৫ জানুয়ারির মধ্যে রাজ্যের প্রতিটি মসজিদ কমিটির কাছে এই মর্মে একটি বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হয়। তাতে উল্লেখ করা ছিল যে রবিবার সকাল সাড়ে আটটার সময় রাজ্যের প্রতিটি মসজিদে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে তারপর সংবিধানের প্রস্তাবনা পাঠ করতে হবে। এর জন্য বিজ্ঞপ্তির সঙ্গে সংবিধানের প্রস্তাবনার একটি প্রতিলিপিও দেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: সাধারণতন্ত্র দিবসের সকালে পরপর বিস্ফোরণ, অসমজুড়ে আতঙ্ক]

 

এপ্রসঙ্গে শাসকদল সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য ও ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান টিকে হামসা বলেন, ‘বর্তমানে খুব কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে আমাদের দেশ। এটা দেখেও আমরা দীর্ঘদিন ধরে চুপ থাকতে পারি না। এখনকার পরিস্থিতি দেখে মুসলিমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। যা আগে কোনওদিন হয়নি। তাই আমরা দেশের ঐক্যকে আরও দৃঢ় করতে ও আতঙ্কিত মুসলিমদের মধ্যে বিশ্বাস ফেরাতে এই উদ্যোগ নিয়েছি।’

৭১ তম সাধারণতন্ত্র দিবসে দেশের অখণ্ডতা রক্ষার শপথ নিতে রাজ্যজুড়ে মানববন্ধন করার উদ্যোগও নিয়েছে শাসকজোট LDF। ৭০ লক্ষ মানুষ রাজ্যের ১৪টি জেলাজুড়ে মানববন্ধন করে নতুন এক ইতিহাস তৈরি করবে। উদ্য়োক্তাদের কথায়, মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন থেকে শুরু করে রাজ্যের সমস্ত স্তরের মানুষ এতে অংশ নেবেন। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর থেকে এতবড় জমায়েত আর হয়নি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং