BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ৪ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সংঘাতের মাঝেও মানবিকতার নজির, লাদাখে ধৃত চিনা সৈনিককে ফেরত পাঠাল ভারত

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: October 21, 2020 8:11 am|    Updated: October 21, 2020 8:11 am

An Images

ডেমচক এলাকা থেকে ভারতীয় সেনার হাতে ধরা পড়ে লালফৌজের জওয়ান ওয়াং ইয়া লং।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখে অনুপ্রবেশকারী চিনা সৈনিককে ফেরত পাঠাল ভারত (India)। মঙ্গলবার রাতে করপোরাল ওয়াং ইয়া লং নামের ওই সৈনিককে লালফৌজের হাতে তুলে দেয় ভারতীয় সেনাবাহিনী।

[আরও পড়ুন: জাতির উদ্দেশে ভাষণে এই ৬টি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু এড়িয়ে গেলেন মোদি, তোপ কংগ্রেস নেতার]

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, আন্তর্জাতিক আইন মেনে ধৃত চিনা সৈনিককে চুশুল-মলডো বর্ডার পয়েন্টে পিপলস লিবারেশন আর্মির (PLA) হাতে তুলে দেওয়া হয়। সোমবার বেলার দিকে লাদাখের (Ladakh) ডেমচক এলাকা থেকে ভারতীয় সেনার হাতে ধরা পড়ে লালফৌজের জওয়ান ওয়াং ইয়া লং। তাঁর কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া নথিতে জানা যায়, চিনের সাংঝিয়ান প্রদেশের বাসিন্দা ওয়াং লালফৌজের করপোরাল ব়্যাঙ্কের আধিকারিক। মূলত সেনাবাহিনীর আগ্নেয়াস্ত্র মেরামতির দায়িত্ব রয়েছে তাঁর উপর। প্রোটোকল মেনে ধৃত সেনা জওয়ানকে গরম পোশাক, অক্সিজেন, খাবারের ব্যবস্থা করে লাদাখে মোতায়েন ভারতীয় সেনাবাহিনী। সংবাদসংস্থার খবর অনুযায়ী, ওই জওয়ান হয়তো অসাবধানতাবশত ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে পড়েছিলেন।

লাদাখে ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনার পারদ চড়ছে। সম্পর্কের উন্নতির জন্য দু’পক্ষের মধ্যে সাত দফা আলোচনা হয়েছে। তারপরেও রফাসূত্রে বের হয়নি। আলোচনার পাশাপাশি যুদ্ধেরও প্রস্তুতিও সারছে দু’দেশই। তারমধ্যে ভারতীয় ভূখণ্ডে চিনা জওয়ান উপস্থিতি সেনাকে ভাবাবে বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। সত্যই অসাবধানতাবশত তিনি এসেছিলেন, নাকি কোনও গোপন মিশনে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকেছিলেন, তা খতিয়ে দেখবে ভারতীয় জওয়ানরা। পাশাপাশি, তিনি কবে থেকে এই ভূখণ্ডে রয়েছেন, কার কার সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন, কোন কোন এলাকায় গিয়েছে তা জানার চেষ্টা করছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

এদিকে, চিনা জওয়ানকে ফিরিয়ে দিয়ে ফের একবার ভারতীয় সেনা বুজিয়ে দিল যে তারা সুশৃঙ্খল ও আইন মেনে চলা বাহিনী। পাকিস্তান ও চিনের এই বিষয়ে অনেকটাই দুর্নাম রয়েছে। ভারত-পাক ও ভারত-চিন যুদ্ধের পর আজও বহু ভারতীয় সৈনিকের খোঁজ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ তাঁদের গোপনে হত্যা করেছে পাক সেনা ও লালফৌজ।

[আরও পড়ুন: ‘মেয়েরা সন্ধেবেলা বাইরে বেরোলে ধর্ষণ তো হবেই’, বিতর্কিত মন্তব্য ঝাড়খণ্ডের বিধায়কের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement