BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শনিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নিখুঁত লক্ষ্যভেদ! আস্ত জাহাজকে ডুবিয়ে দিল নৌসেনার অ্যান্টিশিপ মিসাইল, দেখুন ভিডিও

Published by: Biswadip Dey |    Posted: October 23, 2020 1:41 pm|    Updated: October 23, 2020 1:41 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপকারী রণতরী আইএনএস প্রবাল (INS Prabal) থেকে নিক্ষিপ্ত অ্যান্টিশিপ মিসাইল (Anti-ship missile) বা জাহাজধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রের নিখুঁত লক্ষ্যপূরণের ভিডিও প্রকাশ করল ভারতীয় নৌসেনা (Indian Navy)। নৌসেনার ওই জাহাজ থেকে ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্রটি অব্যর্থ লক্ষ্যভেদ করতে পেরেছে। ভিডিওয় দেখা গিয়েছে সর্বোচ্চ দূরত্বে গিয়ে লক্ষ্যভেদে সক্ষম হয়ে সেটি একটি জাহাজকে ডুবিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছে। টুইটারে ভিডিওটি শেয়ার করা হয় নৌসেনার পক্ষ থেকে। দেখা গিয়েছে আরব সাগরে মহড়া চলার সময় কীভাবে আইএনএস প্রবাল থেকে ছিটকে বেরিয়ে যাচ্ছে ক্ষেপণাস্ত্রটি। তারপর দেখানো হচ্ছে কেমন করে ডুবে যাচ্ছে পুরনো জাহাজটি।

জানা গিয়েছে, ওই পুরনো জাহাজটি একটি ক্ষয়প্রাপ্ত রণতরী। এদিকে বুধবারই নৌসেনায় শামিল হয়েছে অত্যাধুনিক সাবমেরিন বিধ্বংসী রণতরী আইএনএস কাভারাত্তি। স্টিলথ করভেটটিকে নৌসেনায় অন্তর্ভুক্তির জন্য বিশাখাপট্টনমের নেভাল ডকয়ার্ডে একটি অনুষ্ঠান হয়। সেখানে আইএনএস কাভারাত্তির আনুষ্ঠানিক অন্তর্ভুক্তি করেন স্থলসেনা প্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। এক বিবৃতিতে নৌসেনা জানিয়েছে, সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি করা হয়েছে এই যুদ্ধজাহাজ। আইএনএস কাভারাত্তিকে নিয়ে চারটি ভারতীয় প্রযুক্তিতে তৈরি রণতরী নৌসেনায় শামিল হল।

[আরও পড়ুন: বিহারের পর আরও দুই রাজ্যে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিনের ঘোষণা! অব্যাহত রাজনৈতিক তরজা]

জলদস্যু দমনের নামে প্রায়ই ভারত মহাসাগরে ঢুঁ মারতে দেখা যাচ্ছে চিনা রণতরীদের। লালফৌজের উদ্দেশ্য যে সাধু নয়, তা বুঝতে মোটেও অসুবিধা হচ্ছে না ভারতের। সম্প্রতি সীমান্তরেখায় চিনের আগ্রাসন থেকে পরিষ্কার, কোনওভাবেই তাদের সম্প্রসারণবাদী নীতি থেকে পিছু হটতে রাজি নয় বেজিং। স্বাভাবিকভাবেই এবার জলপথেও চিনা সেনাকে টক্কর দিতে তৈরি হচ্ছে নৌসেনা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে আগামী বছরই ভারতের হাতে আসবে ভারতীয় নৌবাহিনীর জন্য বিশেষভাবে তৈরি চারটি পি-৮আই বিমান। ২০২১ সালে এমন আরও ছ’টি বিমান কেনার পরিকল্পনা রয়েছে নয়াদিল্লির।

[আরও পড়ুন: আর বেশিদিনের অপেক্ষা নয়! তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের ছাড়পত্র পেয়ে গেল কোভ্যাক্সিন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement