৩ কার্তিক  ১৪২৬  সোমবার ২১ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দেখে অনুপ্রাণিত হয়েছি।’ বৃহস্পতিবার বিজেপিতে যোগ দিয়ে একথাই বললেন অলিম্পিক পদকজয়ী পদ্মশ্রী যোগেশ্বর দত্ত। তাঁর পাশাপাশি বৃহস্পতিবার হরিয়ানার বিজেপি প্রধান সুভাষ বারালার হাত ধরে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলেন জাতীয় হকি দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সন্দীপ সিং-ও। তাঁদের পাশাপাশি বিজেপিতে এলেন শিরোমণি অকালি দলের এক বিধায়ক।

[আরও পড়ুন: শপিং মলে হিন্দু রাষ্ট্রের স্লোগান, বেধড়ক মার খেলেন যুবক]

বিজেপি যোগদানের পর আয়োজিত সাংবাদিক বৈঠকে কুস্তিগির যোগেশ্বর দত্ত জানান, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাজে অনুপ্রাণিত হয়েই তিনি পদ্ম শিবিরে এসেছেন। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি মানুষের সেবা করতে চাই। আর এই বিষয়ে মোদিজির কাজ থেকে অনুপ্রাণিত হই আমি। তাই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। এর জন্য দীর্ঘদিন ধরে তাঁর প্রতি লক্ষ্য রাখছিলাম আমি। আসলে ক্রীড়াবিদদেরও ভাল কাজ করার জন্য সামনে এগিয়ে আসাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আজ এই পরিবারের সদস্য হতে পেরে তাই আমি খুব খুশি।’

যোগেশ্বর দত্তের সুরে নরেন্দ্র মোদির ভূয়সী প্রশংসা করেন জাতীয় হকি দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সন্দীপ সিং। প্রধানমন্ত্রীর জন্যই তিনি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার অনুপ্রেরণা পেয়েছেন বলে জানান। তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপির প্রতি নজর রাখছি আমি। আর তা করতে গিয়ে মোদিজির দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছি। পাশাপাশি মনোহর লাল খাট্টারের দক্ষতা ও মানসিকতা মুগ্ধ করেছে আমাকে। সমস্ত দিক থেকেই দেশের সেবা করতে চাই আমি। সৎভাবে করতে চাই দলের কাজও।’

[আরও পড়ুন: কমনওয়েলথ গেমস খেলা মানে টাকার অপচয়, দাবি অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের প্রধানের]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১২ সালের অলিম্পিকে ৬০ কেজি বিভাগে ব্রোঞ্জ মেডেল জিতেছিলেন যোগেশ্বর। ২০১৩ সালে পদ্মশ্রী সম্মান পাওয়ার পরে ২০১৪ সালের কমনওয়েলথ গেমসে সোনাও জেতেন। অন্যদিকে ২০০৬ সালে জাতীয় দলে যোগ দিতে আসার সময় ট্রেনে দুর্ঘটনাবশত গুলিবিদ্ধ হন সন্দীপ সিং। এর ফলে নির্বাচিত হওয়ার পরেও জার্মানিতে আয়োজিত হকি বিশ্বকাপে খেলতে পারেননি তিনি। তবে দুবছরের অক্লান্ত পরিশ্রমের পর নিজেকে ফের ভারতীয় দলে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হন। তাঁর জীবনের এই লড়াই নিয়ে সিনেমা তৈরি হয়েছে বলিউডে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে তাঁদের যোগদানের ফলে হরিয়ানায় বিজেপির ক্ষমতা আরও বাড়বে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং