১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘আজম খানের মতো ব্যক্তিরা আসলে লম্পট’, সাংসদকে একহাত নিলেন জাভেদ আখতার

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 28, 2019 3:15 pm|    Updated: July 28, 2019 3:15 pm

Javed Akhtar slammed SP leader Azam Khan on his sexiest remarks

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্ক ও আজম খান একপ্রকার সমার্থক বললে অত্যূক্তি হবে না। লোকসভায় উত্তরপ্রদেশের এই সাংসদের বিতর্কিত মন্তব্যকে ঘিরে আপাতত সমালোচনার ঝড় উঠেছে। সম্প্রতি, বিজেপি সাংসদ রমাদেবীর উদ্দেশে করা আজমের মন্তব্যে নিন্দায় সরব হয়েছেন দেশের মহিলা সাংসদরা। সেই ইস্যুকে কেন্দ্র করে শুক্রবার লোকসভায় মহিলা এবং পুরুষ সাংসদরা দলমত নির্বিশেষে আজমের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছেন। আর সেই চড়া সুরেই সুর মিলিয়েছেন তৃণমূলের দুই নবনির্বাচিত মহিলা সাংসদ মিমি চক্রবর্তী এবং নুসরত জাহান। এবার আজমের প্রতি তীব্র ক্ষোভ উগরে দিলেন স্বনামধন্য কবি তথা গীতিকার জাভেদ আখতার।

সংসদের শ্রদ্ধেয় স্পিকারের উচিত ওকে যথাযথযোগ্য শিক্ষা দেওয়া। এমন শিক্ষা দিক, যা ও কোনওদিন ভুলবে না।”    

উত্তরপ্রদেশের রামপুরের সমাজবাদী পার্টির সাংসদ আজম খানকে কটাক্ষ করে শনিবার জাভেদ একটি টুইট করেন। তিনি লেখেন, “স্পিকারের দায়িত্বে থাকা একজন মহিলা সাংসদকে আজমের এধরনের মন্তব্য করা কখনওই মেনে নেওয়া যায় না। এদের মতো ব্যক্তিরা আসলে অশ্লীল, মূর্খ, লম্পট চরিত্রের। সংসদের শ্রদ্ধেয় স্পিকারের উচিত ওঁকে যথাযথযোগ্য শিক্ষা দেওয়া। এমন শিক্ষা দিক, যা ও কোনওদিন ভুলবে না।”    

[আরও পড়ুন: অসহিষ্ণুতা নিয়ে মোদিকে খোলা চিঠির জের, দেশদ্রোহিতার মামলা অপর্ণা-সৌমিত্রদের বিরুদ্ধে ]

এই প্রথম অবশ্য বেঁফাস মন্তব্য করে বিতর্কে জড়াননি সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খান। সাম্প্রতিক অতীতেও বহুবার মহিলাদের উদ্দেশে কটূক্তি করেছেন তিনি। আর মহিলাদের প্রতি তাঁর কটূক্তিই তাঁকে একাধিকবার খবরের শিরোনামে নিয়ে এসেছে। মাস কয়েক আগেই লোকসভা নির্বাচনের সময়ে বিজেপি প্রার্থী জয়া প্রদা সম্পর্কে কু-মন্তব্য করে সমালোচিত হয়েছিলেন তিনি। সেইবার পার পেলেও, এবার বেশ বিপাকে উত্তরপ্রদেশের রামপুরের সাংসদ আজম। আজমের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ চেয়ে প্রায় সব মহিলা সাংসদই এককাট্টা হয়ে স্পিকার ওম বিড়লার সামনে সরব হয়েছেন। শুধু মহিলা সাংসদরাই নন, লোকসভার পুরুষ সাংসদরাও শুক্রবার তাঁর আচরণের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। এমনকী, কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যাণমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি এবং আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ তাঁকে বরখাস্ত করার দাবি জানিয়েছেন। এই প্রসঙ্গে রমাদেবী জানিয়েছেন, আজম খান শুধু ক্ষমা চাইলেই হবে না!

[আরও পড়ুন: ক্ষমা চাইতে হবে আজম খানকে, একযোগে সরব মিমি-নূুসরত-সহ মহিলা সাংসদরা ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে