BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জেলের মধ্যেই সংঘর্ষে মৃত বন্দি, একসঙ্গে ১৫ জনকে ফাঁসির সাজা শোনাল ঝাড়খণ্ডের আদালত

Published by: Biswadip Dey |    Posted: August 18, 2022 7:51 pm|    Updated: August 18, 2022 7:51 pm

Jharkhand court sentenced 15 people to death। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ১৫ জন বন্দিকে ফাঁসির (Death sentence) সাজা শোনাল ঝাড়খণ্ডের (Jharkhand) পূর্ব সিংভূম জেলা আদালত। ২০১৯ সালে বন্দিদের মধ্যে হওয়া সংঘর্ষে মৃত্যু হয় এক বন্দির। সেই মামলাতেই এই রায় দিল আদালত। এছাড়াও ৭ জনকে ১০ বছরের কারাবাসের রায়ও শুনিয়েছেন বিচারক। তাঁদের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগে মামলা রুজু হয়েছিল।

বছর তিনেক আগে ২০১৯ সালের ২৫ জুন জামশেদপুরের ঘাগিডি সেন্ট্রাল জেলের ভিতরে বন্দিদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়ে যায়। দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বচসা থেকেই ওই সংঘর্ষ হয়েছিল বলে জানা যায়। সংঘর্ষে দু’জন বন্দি গুরুতর আহত হন। তাঁদের অন্যতম মনোজকুমার সিংয়ের চোট ছিল গুরুতর। দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় মনোজকে। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরে চিকিৎকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপরই স্থানীয় থানায় একটি মামলা রুজু হয়। তদন্ত শুরু করে পুলিশ। উল্লেখ্য, মৃত মনোজ সিং গ্যাংস্টার অখিলেশ সিংয়ের গ্যাংয়ের সদস্য ছিলেন।

[আরও পড়ুন: নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর, তৃণমূলে যোগদান নিয়ে তুঙ্গে জল্পনা]

অবশেষে সেই মামলাতেই বৃহস্পতিবার এই রায় দিয়েছে আদালত। ১৫ জন আসামিকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারা (অর্থাৎ খুন) এবং ১২০বি (অর্থাৎ অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র) ধারায় ফাঁসির সাজা শোনানো হয়েছে। এছাড়া এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত আরও ৭ জনকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৭ ধারায় (অর্থাৎ খুনের প্রচেষ্টা) ১০ বছরের কারাবাসের সাজা দিয়েছেন বিচারক।

সরকারি আইনজীবী রাজীব কুমার এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে এই কথা জানিয়েছেন।
পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিতদের মধ্যে দু’জন জেল থেকে ফেরার। আদালত রাজ্য পুলিশের ডিজিকে নির্দেশ দিয়েছে, ওই দু’জনকে যত দ্রুত সম্ভব আদালতে হাজির করতে। পুলিশ এরই মধ্যে তাদের সন্ধানে তল্লাশি শুরু করে দিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

[আরও পড়ুন: যৌনতায় ‘না’, রাগের চোটে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুন করল স্বামী]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে