২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

হিন্দুত্বের অপমান! হনুমানের মূর্তি-সহ মন্দিরের আকারের কেক কেটে বিতর্কে কমল নাথ

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: November 17, 2022 12:14 pm|    Updated: November 17, 2022 12:14 pm

Kamal Nath cuts temple-shaped cake, BJP says 'insulting Hindus' | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ‘হিন্দুত্বের অপমান’ করার অভিযোগে কংগ্রেসকে কাঠগড়ায় তুলল বিজেপি (BJP)। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, কংগ্রেস নেতা কমল নাথ ইচ্ছাকৃতভাবে হিন্দুদের অপমান করছেন। তাঁর ‘অপরাধ’, নিজের এলাকায় একটি মন্দিরের উদ্বোধনে গিয়ে মন্দিরের আকারের একটি কেক কেটেছিলেন কংগ্রেস (Congress) নেতা। সম্প্রতি কমল নাথের ওই কেক কাটার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।

আসলে কমল নাথ (Kamal Nath) নিজের ছেলের লোকসভা কেন্দ্র ছিন্দওয়াড়াতে একটি বড়সড় হনুমান মন্দির তৈরি করেছেন। সেই মন্দিরের উদ্বোধনে গিয়ে অনুগামীদের অনুরোধে কেকটি কাটেন তিনি। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কেকটি একটি মন্দিরের আকারের। মন্দিরের শীর্ষে একটি গেরুয়া পতাকা আছে। তার গায়ে একটি হনুমানের মূর্তিও ছিল। কমল নাথ সেই কেকে ছুরি বসাতেই অনুগামীরা হাততালি দিয়ে উঠছেন। বিজেপি বলছে, এভাবে হনুমানজির (Hanuman) উপর ছুরি চালিয়ে আসলে হিন্দুদের অপমান করছেন মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: রিজার্ভ ব্যাংকের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনার পরই নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত, সুপ্রিম কোর্টে জানাল কেন্দ্র]

বিজেপি আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য (Amit Malviya) টুইট করে বলেছেন,”কমল নাথের মতো সিনিয়র কংগ্রেস নেতা চারতলা মন্দিরের আকারের কেকে ছুরি চালিয়ে দিলেন। কেকটির উপরে আবার গেরুয়া পতাকা এবং হনুমানজির মূর্তি ছিল। ভোটের আগে এই কমলনাথই দাবি করেন তিনি হনুমান ভক্ত। অথচ তিনিই হনুমানজির উপর ছুরি চালিয়ে কোটি কোটি হিন্দুকে অপমান করছেন।” মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানও (Shivraj Singh Chouhan) বলছেন, এই ধরনের কেক বানানো এবং কাটা দুটোই হিন্দুদের জন্য অপমানজনক। মানুষ এই ধরনের অপরাধীদের ক্ষমা করবে না।

[আরও পড়ুন: এবার কাশ্মীরে জি-২০ সম্মেলন! পাকিস্তানকে চাপে ফেলে কৌশলী দিল্লি]

যদিও কংগ্রেস এই অভিযোগকে পাত্তা দিতে নারাজ। কংগ্রেসের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, কমল নাথ খুব ধার্মিক মানুষ। আসলে ওই কেকটি সমর্থকরা বানিয়েছিলেন। অনেক সময় সমর্থকদের আবেগকে উপেক্ষা করা যায় না। তাই নেতারা বাধ্য হন কিছু কাজ করতে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে