BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

মুসলিম ভাবাবেগে আঘাতের জেরেই খুন উত্তরপ্রদেশের হিন্দুত্ববাদী নেতা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 19, 2019 2:41 pm|    Updated: October 19, 2019 8:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হজরত মহম্মদকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জেরেই খুন হতে হয়েছে কমলেশ তিওয়ারিকে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হিন্দুত্ববাদী নেতার তিন খুনিকে গ্রেপ্তার করার পর একথাই জানাল পুলিশ। শনিবার দুপুরে লখনউতে একটি সাংবাদিক বৈঠক করে তদন্তের অগ্রগতি সম্পর্কে মন্তব্য করেন উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিজিপি ওমপ্রকাশ সিং।

[আরও পড়ুন:ভারতে প্রতি বছর অপুষ্টির বলি ৬৯% শিশু, চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট ইউনিসেফের]

তিনি বলেন, ‘শুক্রবার রাতেই গুজরাটের একটি জায়গায় অভিযান চালানো হয়। উত্তরপ্রদেশ ও গুজরাট এটিএসের একটি যৌথ দল পাঁচজনকে আটক করে। জেরার পর তার মধ্যে দু’জনকে ছেড়ে দেওয়া হলে বাকি তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃতদের নাম মৌলানা মহসিন শেখ, ফয়জান, খুরশিদ আহমেদ পাঠান। বাকি দু’জনের উপরও কড়া নজর রাখা হচ্ছে। প্রাথমিক জেরায় জানা গিয়েছে, ২০১৫ সালে হজরত মহম্মদ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য জেরেই হিন্দু সমাজ পার্টির নেতা কমলেশ তিওয়ারি খুনের পরিকল্পনা নিয়েছিল ধৃতরা। সুযোগ মিলতেই সেই অনুযায়ী কাজ করেছে। এটা সম্পূর্ণ একটি সাম্প্রদায়িক হিংসার ঘটনা। ধৃতদের জেরা করে এই খুনে জড়িত থাকা বাকিদের গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে। এরপরই এই খুনের ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেওয়া সম্ভব হবে। ধৃত তিনজনের নামে পুরনো কোনও অপরাধের অভিযোগ না থাকলেও আটকদের মধ্যে একজন পুরনো অপরাধী। আটকদের জেরা করা হচ্ছে। প্রয়োজন পড়লে তাদের হেফাজতে নিয়ে উত্তরপ্রদেশ নিয়ে আসা হবে।’

উত্তরপ্রদেশ পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছ, দায়ের হওয়া এফআইআরে ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে মৌলানা আনওয়ারুল হক ও মুফতি নইম কাজমি নামে আরও দুই ব্যক্তির নাম আছে। স্থানীয় ওই দুই ব্যক্তিকে প্রথমে আটক করে জেরা করা হয়। পরে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই ঘটনার পিছনে কোনও ইসলামিক জঙ্গি সংগঠন আছে বলে সন্দেহ করা হলেও এখন প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

[আরও পড়ুন:বিধানসভা নির্বাচনে দুই রাজ্যেই গেরুয়া ঝড়! ইঙ্গিত নয়া সমীক্ষায়]

শুক্রবার রাতে গুজরাট এটিএস ও উত্তরপ্রদেশ পুলিশের যৌথ দলের অভিযানের সময়ের একটি সিসি়টিভি প্রকাশ্যে এসেছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, একটি বাড়ির ভিতর থেকে কয়েকজন লোক তিনজন ব্যক্তিকে বের করে নিয়ে আসছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement