৬ আশ্বিন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কর্ণাটকের রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য বিজেপির দিকে আঙুল তুলছে বিরোধীরা। কিন্তু, সেই অভিযোগ মানতে নারাজ কেন্দ্রের শাসকদল। উলটে এই পরিস্থিতির জন্য কংগ্রেস ও জেডি(এস)-র দিকে আঙুল তুলছে তারা। সোমবার আবার কর্ণাটক নিয়ে কথা বলতে গিয়ে এর জন্য সরাসরি রাহুল গান্ধীকে দায়ী করলেন রাজনাথ সিং। রাহুল গান্ধীর দেখানো পথেই সবাই ইস্তফা দিচ্ছেন বলে কটাক্ষ করেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

[আরও পড়ুন- জলপাইগুড়ি শিশু পাচার কাণ্ডে জামিন বহিষ্কৃত বিজেপি নেত্রী জুহি চৌধুরির]

সোমবার সংসদে বক্তব্য রাখার সময় কর্ণাটকের পরিস্থিতির জন্য বিজেপিকে আক্রমণ করেন বিরোধী দলনেতা অধীর চৌধুরি। বিজেপির পরিকল্পনাতেই কর্ণাটকে রাজনৈতিক অচলাবস্থা তৈরি হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এর উত্তরে এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপি কোনওভাবে যুক্ত নয় বলে দাবি করেন লখনউয়ের বিজেপি সাংসদ রাজনাথ। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, “কর্ণাটকে যা হচ্ছে তার সঙ্গে আমাদের দল বিজেপির কোনও যোগ নেই। এই নিয়ে কিছু করার ইচ্ছাও নেই। আমরা কখনওই বিধায়ক কেনাবেচাতে জড়িত থাকি না।”

এরপরই রাহুল গান্ধীকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, “ইস্তফা দিয়ে কংগ্রেসে এই পরিস্থিতির সূচনা করেছিলেন রাহুল গান্ধী। আর তারপর সেটাই অনুকরণ করতে শুরু করেছেন বাকি কংগ্রেস নেতারা। এটা তো আর আমরা শুরু করিনি। তিনি নিজেই মানুষকে ইস্তফা জমা দিতে বলেছিলেন। এর ফলে সিনিয়র নেতারাও ইস্তফা দিয়েছেন। বিজেপি সংসদীয় গণতন্ত্রের সম্মান রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তাই এই ধরনের বিষয়ে ঢোকে না।”

[আরও পড়ুন- আরও সংকটে কর্ণাটক সরকার, বিদ্রোহী বিধায়কদের ফেরাতে ইস্তফা সব মন্ত্রীর!]

গত শনিবার কর্ণাটক বিধানসভার স্পিকারের কাছে ইস্তফাপত্র জমা দেন আটজন কংগ্রেস ও তিনজন জেডি(এস) বিধায়ক। এরপরই রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হয় সেখানে। সোমবারও একজন নির্দল বিধায়ক ইস্তফা দিয়ে বিজেপিকে সমর্থন দেওয়ার কথা বলেন। এদিকে কুমারস্বামীর মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফাও দেন ২২ জন মন্ত্রী। কংগ্রেস ও জেডি(এস) নেতারা মুখে সমস্যা মিটে যাবে বললেও পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপ দিকে যাচ্ছে। এই অবস্থায় গোটা পরিস্থিতির জন্য রাহুল গান্ধীকেই দায়ী করলেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং