BREAKING NEWS

২৬ চৈত্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৯ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

‘হিংসার রাজনীতি বরদাস্ত করা হবে না’, বিধানসভায় কড়া বার্তা কেজরিওয়ালের

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 26, 2020 7:31 pm|    Updated: February 26, 2020 8:39 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির হিংসায় বিরক্ত মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। বিধানসভায় দাঁড়িয়ে কড়া বার্তা, “যথেষ্ট হয়েছে। হিংসার রাজনীতি আর বরদাস্ত করা হবে না।”  এদিকে দিল্লির হিংসার প্রথম বলি ছিলেন হেড কনস্টেবল রতন লাল।বুধবারই চোখের জলে তাঁকে শেষ বিদায় জানিয়েছেন পরিবারের সদস্যরা। এর  কয়েক ঘণ্টার মধ্যে রতন লালের পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। বিধানসভায় দাঁড়িয়ে তিনি ঘোষণা করলেন, “রতন লালের পরিবারকে এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে দিল্লি সরকার। চাকরি পাবেন পরিবারের এক সদস্য।” একইসঙ্গে দিল্লির হিংসা নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, দিল্লির আম আদমী হিংসার সঙ্গে যুক্ত নয়। বরং বহিরাগতদের উসকানিতেই হিংসা ছড়িয়েছে। হিন্দু, মুসলিম উভয়পক্ষই যার শিকার হয়েছেন। বুধবার সন্ধেয় তিনি উপদ্রুত এলাকা ঘুরে দেখেন। স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। এমনকী উত্তর-পূর্ব দিল্লির ডিসিপির অফিসেও যান কেজরিওয়াল।

[আরও পড়ুন : দিল্লি হিংসা: উপদ্রুত এলাকা ঘুরে দেখে বাসিন্দাদের আশ্বস্ত করলেন দোভাল]

বিধানসভায় রা্জধানীর হিংসা নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করলেন কেজরিওয়াল। তাঁর কথায়, “দিল্লির মানুষের সামনে এখন দু’টো পথ খোলা রয়েছে। একে সকলে হাতে হাত মিলিয়ে হিংসা রুখবে। নয়তো একে অপরকে খুন করুক। কিন্তু মৃতদেহের পাহাড়ের উপর নতুন দিল্লি তৈরি করা সম্ভব নয়।” এরপর কিছুটা রুষ্ট হয়েই দিল্লির তৃতীয়বারের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “যথেষ্ট হয়েছে। এভাবে আর চলতে পারে না। হিংসার রাজনীতি, ঘৃণার রাজনীতি, মানুষ খুনের রাজনীতি, ঘর জ্বালানোর রাজনীতি আর সহ্য করা হবে না।” এদিন বিধানসভায় দাঁড়িয়ে দিল্লির রাস্তায় আরও একবার সেনা নামানোর পক্ষে সওয়াল করলেন তিনি।

[আরও পড়ুন : বাচ্চাদের জন্য মিষ্টি কিনে বাড়ি ফেরার সময় বেধড়ক মার, এখনও আতঙ্ক কাটছে না জুবেইরের]

দিল্লির উত্তেজনাময় পরিস্থিতিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে গতকাল দফায় দফায় বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। পরিস্থিতি ক্রমশ দিল্লি পুলিশের হাত থেকে বাইরে বেরিয়ে যাওয়ার কথাও জানান। আবেদন করে টুইট করেন, “দিল্লির একাধিক মানুষের সঙ্গে কথা হয়েছে। রাজধানীর বেশিরভাগ এলাকার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আমার বিনিত আবেদন আপনি দিল্লিতে সেনা মোতায়েন করুন। পরিস্থিতি ক্রমশ দিল্লি পুলিশের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। দিল্লির ৪টি জায়গা ছাড়াও বাকি কিছু জায়গাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেনার প্রয়োজন।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement