BREAKING NEWS

২৬ চৈত্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৯ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

দিল্লি হিংসা: উপদ্রুত এলাকা ঘুরে দেখে বাসিন্দাদের আশ্বস্ত করলেন দোভাল

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 26, 2020 6:08 pm|    Updated: February 26, 2020 8:45 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত ৭২ ঘণ্টা অশান্তির আগুনে পুড়েছে দিল্লি। এখনও অবধি বলি হয়েছেন ২৭ জন। আধা সামরিক বাহিনী নামিয়েও পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয়েছে কেন্দ্র সরকারকে। শেষ অবধি রাজধানীকে শান্ত করতে দায়িত্ব পেয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই স্বমহিমায় তিনি। দফায়-দফায় বৈঠক। আর কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ। তাতেই দায় সারেননি জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা। বরং বেলা গড়াতেই দিল্লির হিংসা উপদ্রুত এলাকায় ঘুরে দেখলেন তিনি। কথা বললেন স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে। বুঝিয়ে দিলেন পুলিশ-প্রশাসন তাঁদের সঙ্গে আছেন। শেষে সংবাদ মাধ্যমকে  তিনি জানান, “এখানে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আছে। আমার পুলিশ-কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর ভরসা আছে। পুলিশ তাদের নিজের কাজ করছে।” এদিন নতুন করে অশান্তি ছড়ানোর খবর সামনে আসেনি। তবে মৃতের সংখ্যা বেড়েছে।

[আরও পড়ুন : ‘দেশবাসী শান্তিতে থাক’, পুরীর মন্দিরে পুজোর পর দিল্লির হিংসা নিয়ে দুঃখপ্রকাশ মমতার]

হিংসা ছড়ানোর  পরে নিষ্ক্রিয় থাকার অভিযোগ উঠেছে দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে। এরপরই বুধবার অজিত ডোভালকে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার দায়িত্ব দেওয়া হয়। এদিন তিনি সিলামপুর, জাফরাবাদ, মৌজপুর, গোকুলপুরী চক প্রভৃতি জায়গা ঘুরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন। এদিকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা নিরাপত্তা বিষয়ে বৈঠকে বসেছে দিল্লিতে। সেখানে অজিত ডোভাল সকলকে দিল্লির পরিস্থিতি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেবেন। এদিন অজিত বলেছেন, ‘‘নাগরিকদের মধ্যে নিরাপত্তাহীনতা কাজ করছে। আমাদের সকলের মন থেকে ভয় দূর করতে হবে।” তিনি আরও বলেন, ‘‘সমস্ত দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে। দিল্লির রাস্তায় কেউ বন্দুক হাতে ঘুরে বেড়াতে পারবে না।”

[আরও পড়ুন : ‘আমাকে গুলি করতে পারত’, বন্দুকবাজের সামনে অকুতোভয় ছিলেন পুলিশকর্মী]

এদিন স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলার পর দোভাল আরও জানান, “সাধারণ মানুষ নিজের দেশকে ভালবাসে, সমাজকে ভালবাসে। সকলে শান্তিতে থাকতে চায়। কিন্তু কিছু দুষ্কৃতী অশান্তি ছড়াচ্ছে। মানুষই তাদের আলাদা করে দিয়েছে। পুলিশ মানুষের সঙ্গে রয়েছে।” সূত্রের খবর, মউজপুরের বাসিন্দারা তাঁর সঙ্গে কথা বলে সন্তুষ্ট। নতুন করে অশান্তিও ছড়ায়নি। যা দেখে ওয়াকিবহাল মহল বলছে, দোভাল কয়েক ঘণ্টায় বুঝিয়ে দিলেন কেন প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাঁর উপর ভরসা রাখেন। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement