BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভেন্টিলেটরের প্লাগ খুলে কুলার চালাল পরিবার, সরকারি হাসপাতালে রোগীর মৃত্যু

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 20, 2020 5:19 pm|    Updated: June 20, 2020 5:23 pm

Kota man dies after family members unplug ventilator to plug in cooler

সংবাদ প্র্তিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইসোলেশ ওয়ার্ডে (Isolation Ward) ভীষণ গরম। তাই বাড়ি থেকে কুলার নিয়ে গিয়েছিলেন রোগীর পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু কি মুশকিল! কুলারের প্লাগ লাগানোর জায়গা কই! একটা মাত্র প্লাগপয়েন্ট, তাতেও কী যেন একটা প্লাগ-ইন করা। সেই প্লাগ খুলে কুলার চালিয়েছিলেন রোগীর পরিবারের সদস্যরা। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই ওই ওয়ার্ডে থাকা রোগীর মৃত্যু হল। কারণ, ভেন্টিলেটরের (Ventilator) প্লাগ খুলে চালানো হয়েছিল কুলার। রাজস্থানের কোটার (Kota) সরকারি হাসপাতালে এমন ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ৷

জানা গিয়েছে গত ১৩ জুন করোনার উপসর্গ নিয়ে চল্লিশ বছরের ওই ব্যক্তিকে মহারাও ভীম সিং হাসপাতালে ভরতি করা হয়। তাঁকে আইসিইউ-তে রাখা হয়েছিল। কিন্তু তাঁর করোনা (Covid-19) পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এরপর ওই ওয়ার্ডে গত ১৫ তারিখ অন্য একজন করোনা সংক্রমিত হন। ফলে ওই রোগীকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়।

[আরও পড়ুন : কমছে বেতন, কাজের দিনও, লকডাউন পরবর্তীতে কর্মীদের জন্য নতুন শর্ত এয়ার ইন্ডিয়ার]

নতুন ওয়ার্ডে খুব গরম থাকায় রোগীর পরিজনরাই একটি কুলার নিয়ে আসেন  অভিযোগ, কুলার চালানোর জন্য কোনও বৈদ্যুতিন পয়েন্ট বা সকেট না পেয়ে রোগীর আত্মীয়রা ভেন্টিলেটরের প্লাগটিই খুলে নেন। এবং সেখানে কুলারের প্লাগ লাগিয়ে দেন। এর আধ ঘণ্টার মধ্যেই ভেন্টিলেটর কাজ করা বন্ধ করে দেয়। সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকদের জানানো হয়। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। কিন্তু রোগীর পরিবারের সদস্যরা সহযোগিতা করছেন না। তাঁদের প্রশ্ন করলেও জবাব মিলছে না। অভিযোগ, অনুমতি না নিয়েই তাঁরা হাসপাতালে কুলার আনেন। এদিকে রোগীর মৃত্যুর পর তাঁরাই চিকিৎসক এবং হাসপাতালের কর্মীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন বলেও খবর।

[আরও পড়ুন : আকাশ থেকে তীব্র গতিতে এসে পড়ল ধাতব চাঁই, বিকট শব্দে কাঁপল এলাকা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে