BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এবার দিনে ১২ ঘণ্টা কাজ করতে হবে শ্রমিকদের! খসড়া প্রস্তাব পেশ শ্রম মন্ত্রকের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 21, 2020 12:45 pm|    Updated: November 21, 2020 1:34 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দৈনিক সর্বোচ্চ ৯ ঘণ্টার বদলে এবার কি তবে ১২ ঘণ্টা কাজ করতে হবে? খসড়া প্রস্তাবে তেমনই জানিয়েছে শ্রম মন্ত্রক (Labour Ministry)। যদিও মন্ত্রকের এই প্রস্তাব চূড়ান্ত হয়নি। তা করতে সকলের পরামর্শ চেয়ে পাঠিয়েছে কেন্দ্রের এই মন্ত্রক। সেসব গ্রহণ করে, আলোচনার মাধ্যমে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে খবর।

এতদিন পর্যন্ত নিয়ম অনুযায়ী, সপ্তাহে ৬ দিন প্রত্যহ ৮ ঘণ্টা করে কাজ করতে হতো কর্মীদের। প্রতি সপ্তাহে ৪৮ ঘণ্টা কাজ – এই সময়সীমা একই থাকছে বলে খবর। তাহলে বাড়তি সময় কাজ করতে হবে কখন? সেই হিসেবও বিস্তারিতভাবে খসড়ায় জানিয়েছে শ্রম মন্ত্রক। ওভারটাইম অর্থাৎ কাজের বাইরে খুব বেশি হলে ১ ঘণ্টা অতিরিক্ত কাজ করতে হতো। অর্থাৎ কোনও কোনও দিন ৮ ঘণ্টার বদলে ৯ ঘণ্টা কাজ করতেন কর্মীরা।

[আরও পড়ুন: সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে ফের গুলি পাকিস্তানের, রাজৌরিতে শহিদ সেনা জওয়ান]

কিন্তু শ্রম মন্ত্রকের খসড়া (Draft) প্রস্তাব অনুযায়ী, এবার থেকে প্রয়োজনে এক ঘণ্টা নয়, চারঘণ্টা বেশি সময় কাজ করতে হতে পারে। অর্থাৎ দিনে সর্বোচ্চ ১২ ঘণ্টা কাজের প্রস্তাব রাখতে চলেছে মন্ত্রক। তবে দিনে যত ঘণ্টাই কাজ করুন না কেন কোনও কর্মী, সপ্তাহে তাঁর কাজের সময়ে ৪৮ ঘণ্টার বেশি করা যাবে না কোনওভাবেই।

সংসদের গত অধিবেশনে শ্রম মন্ত্রকের তরফে কর্মস্থলে নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য ও কাজের পরিবেশ সংক্রান্ত তিনটি বিল পাশ করানো হয়েছিল। এই নতুন আইনের আওতায় এবার দৈনিক সর্বোচ্চ ১২ ঘণ্টার কাজ প্রস্তাবটি আনা হয়েছে বলে মন্ত্রক সূত্রে খবর। এ নিয়ে মন্ত্রকের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক জানাচ্ছেন, “একেবারে জরুরি পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে আমরা দৈনিক কাজের সময়সীমা বাড়ানোর প্রস্তাব এনেছি। এতে যেমন কাজ দ্রুতগতিতে হবে, তেমনই কর্মীরাও অতিরিক্ত উপার্জনের সুযোগ পাবেন। আগে খুব বেশি হলে ১ ঘণ্টার জন্য অতিরিক্ত পারিশ্রমিক দেওয়া যেত। এখন তা আরও বাড়ছে। শ্রমিকস্বার্থেই এই সিদ্ধান্ত।”

[আরও পড়ুন: হাথরাসে ‘ধর্মীয় উসকানি’ দিতে যাচ্ছিলেন কেরলের ‘সাংবাদিক’, সুপ্রিম কোর্টে দাবি পুলিশের]

এ নিয়ে শ্রমিক সংগঠনগুলির অভিযোগ, এভাবে ঘুরপথে কর্মীদের দিয়ে অতিরিক্ত কাজ করিয়ে নেওয়ার চক্রান্ত করছে কেন্দ্র, যা কোনওভাবেই মেনে নেওয়া হবে না।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement