BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অযাচিত আগ্রাসন নয়! লাদাখ সীমান্তে যে কোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত হচ্ছে সেনা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 10, 2020 9:23 am|    Updated: September 10, 2020 9:23 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যে কোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। যে কোনও মূল্যে রক্ষা করতে হবে দেশের সীমান্ত। লাদাখে মোতায়েন কম্যান্ডারদের স্পষ্ট নির্দেশ দিয়ে দিল ভারতীয় সেনা (Indian Army)। আসলে, দিন দিন লাদাখে নিজেদের শক্তি বাড়িয়ে নিচ্ছে চিন। সেই সঙ্গে মাঝে মাঝেই চলছে ভারতীয় ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশের চেষ্টা। তাই স্থানীয় কম্যান্ডারদের সবরকমভাবে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিল সেনা হাই কম্যান্ড।

জানা গিয়েছে, বিগত এক সপ্তাহ ধরে প্যাংগং হ্রদের (Pangong Tso) দক্ষিণ পাড়ে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ভারত ও চিনের ফৌজ। গত মার্চ মাস থেকেই প্যাংগং হ্রদের উত্তর পাড়ে আগ্রাসন চালিয়ে আসছিল চিনা বাহিনী। ১৫ জুনের সংঘর্ষের পর দুই দেশের মধ্যে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে বেশ কয়েক দফা আলোচনা হলেও কাজের কাজ কিছু হয়নি। প্রতিবারই ভারতের সঙ্গে বেইমানি করেছে লালফৌজ। বৈঠকের টেবিলে একরকম কথা আর বাস্তবে অন্যরকম কাজ, এটাই নীতি হয়ে দাঁড়িয়েছে চিনা বাহিনীর। এর মধ্যে আবার গত ২৯ এবং ৩০ আগস্ট চিনারা ভারতীয় সীমান্তে ঢোকার চেষ্টা করেছিল। যা ভারত প্রতিহত করেছে। এই মুহূর্তে প্যাংগংয়ের দক্ষিণ উপকূলে ভারত রয়েছে অ্যাডভান্টেজে আর চিনারা উত্তর উপকূল দিয়ে হামলার ছক কষছে। সেজন্য রীতিমতো প্রস্তুতিও নিয়ে ফেলেছে চিনা সেনা। সূত্রের খবর, এই মুহূর্তে লাদাখ সীমান্তে প্রায় ৫০ হাজার লালফৌজ (PLA) মোতায়েন আছে। সেই সঙ্গে রয়েছে ট্যাঙ্ক, সাঁজোয়া গাড়ি-সহ যাবতীয় আধুনিক সমরসজ্জা। যা রীতিমতো চিন্তার বিষয় হলেও, ভারতীয় সেনা যে কোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত।

[আরও পড়ুন: দক্ষিণে ধাক্কা খেয়েছে ‘ড্রাগন’, এবার প্যাংগং হ্রদের উত্তরে ‘হামলার প্রস্তুতি’ লালফৌজের]

তবে, প্রস্তুতি থাকলেও এখনই কোনও ভুল পদক্ষেপ করতে রাজি নয় ভারত। সূত্রের খবর, চিন যতই লম্ফঝম্ফ করুক, ভারতীয় বাহিনীকে অনুশাসন বজায় রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কোনওরকম শক্তি প্রদর্শন বা অতিরিক্ত বাহিনী ব্যবহার না করার নির্দেশ দিয়েছে সেনা। আসলে ভারত চায় না যে, সীমান্তে সংঘর্ষের জন্য চিন কোনওভাবে ভারতীয় সেনার কার্যকলাপকে দায়ী করুক।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement