২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

কবে শুরু কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ক্লাস? জানালেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 22, 2020 2:13 pm|    Updated: September 22, 2020 2:35 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার প্রকোপে ধাক্কা খেয়েছে পঠনপাঠন। বন্ধ কলেজের পরীক্ষা। দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা মিটে গেলেও এখনও কলেজে ক্লাস শুরু করা সম্ভব হয়নি। কিন্তু মহামারীর জন্য তো আর পড়াশোনা থেমে থাকতে পারে না! তাই স্নাতক (Under Graduate) ও স্নাতকোত্তরের (Post Graduate) প্রথম সেমেস্টারের নয়া শিক্ষাবর্ষ শুরুর দিনক্ষণ ঘোষণা করল কেন্দ্র। মঙ্গলবার গোটা শিক্ষাবর্ষের সময়সূচি জানিয়ে দেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশাঙ্ক (Ramesh Pokhriyal Nishank)।

টুইটারে কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘করোনা ভাইরাস মহামারীর প্রেক্ষিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের প্রথম বর্ষের সূচি নিয়ে কমিটির রিপোর্ট গ্রহণ করেছে কমিশন। ইউজিসির (বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের) নির্দেশিকায় অনুমোদনও দিয়েছে।’ ফলে চলতি বছরের ১ নভেম্বর থেকে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথমবর্ষের ক্লাস শুরু হবে। এদিন টুইটে আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ তারিখের কথা উল্লেখ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

[আরও পড়ুন : UGC’র নির্দেশিকা মেনে পরীক্ষার সময় কমাল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, বরাদ্দ আড়াই ঘণ্টা]

মন্ত্রী জানিয়েছেন, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে ভরতি প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে। প্রথম বর্ষ বা সেমেস্টারের পঠনপাঠন শুরু হবে ১ নভেম্বর, ২০২০-তে। এই ব্যাচের পড়ুয়াদের প্রথম পরীক্ষার নেওয়া হবে ২০২১ সালের ৮ মার্চ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত। এরপর সেমেস্টার ব্রেক থাকবে ২০২১ সালের ২৭ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত।এবারের ব্যাচের পড়ুয়াদের পরবর্তী শিক্ষাবর্ষের শুরুর তারিখ  ২০২১ সালের ৩০ অগস্ট।

[আরও পড়ুন : বিরোধীশূন্য রাজ্যসভায় পাশ তৃতীয় কৃষি বিলও, ‘অত্যাবশ্যকীয় পণ্য’ থেকে বাদ চাল-আলু-তেল]

শুধুমাত্র নয়া শিক্ষাবর্ষ ঘোষণাই নয়, পড়ুয়াদের আর্থিক দিকের কথা মাথায় রেখে বেশকিছু বড় ঘোষণাও করা হয়েছে। বলা হয়েছে, চলতি বছরে কোনও পড়ুয়া কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভরতি হয়েও ছেড়ে দিলে পুরো অর্থ ফেরত পাবেন। একই সুবিধা মিলবে মাইগ্রেশনের ক্ষেত্রেও। তবে তা করতে হবে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে। শুধুমাত্র চলতি বছরের জন্যই এই সুবিধা মিলবে বলে খবর। তবে ইউজিসির এই ঘোষণায় ফের জটিলতা তৈরি হয়েছে। বাংলায় ১৮ অক্টোবরের পর্যন্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকস্তরের তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা চলবে। এর পর কীভাবে ১ নভেম্বর থেকে স্নাতকোত্তরের প্রথমবর্ষের ক্লাস শুরু সম্ভব হবে, তা নিয়ে জটিলতা বেড়েছে। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement