BREAKING NEWS

১৪ কার্তিক  ১৪২৭  শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

ভূস্বর্গে ফের বানচাল নাশকতার ছক, পুলওয়ামায় খতম শীর্ষ লস্কর জঙ্গি-সহ ২

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 10, 2020 7:24 pm|    Updated: October 10, 2020 9:09 pm

An Images

ঘটনাস্থলের ছবি

মাসুদ আহমেদ, শ্রীনগর: প্রতিমুহূর্তে জম্মু ও কাশ্মীরে নাশকতা চালানোর চেষ্টা করছে পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গিরা। কিন্তু, ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থাগুলির তৎপরতার কারণে জঙ্গি হামলার সমস্ত চেষ্টাই ব্যর্থ হচ্ছে ভূস্বর্গে। শনিবার দুপুরে ফের দুই জঙ্গিকে খতম করলেন নিরাপত্তারক্ষীরা। তাদের মধ্যে একজন কুখ্যাত লস্কর জঙ্গি জাহিদ নাজির ভাট ওরফে জাহিদ টাইগার বলে জানিয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা (Pulwama) জেলার ডাডোরা কানগান এলাকায়। ঘটনাস্থল থেকে পলাতক বাকি জঙ্গিদের সন্ধানে এখনও তল্লাশি চলছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গোপন সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার ডাডোরা কানগান (Dadoora Kangan) এলাকায় তল্লাশি চালাতে শুরু করে পুলিশ, ৫৫ নম্বর রাষ্ট্রীয় রাইফেলস ও সিআরপিএফের যৌথবাহিনী। খুঁজতে খুঁজতে নিরাপত্তারক্ষীরা যখন সন্দেহজনক এলাকার কাছে পৌঁছে গিয়েছেন তখন আচমকা তাঁদের লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। পালটা জবাব দেন নিরাপত্তারক্ষীরাও। উভয়পক্ষের গুলির লড়াইয়ের ফলে দুই জঙ্গি খতম হয়। তবে তাদের বাকি সঙ্গীরা পালিয়ে গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: জাতের নামে বজ্জাতি! উচ্চবর্ণের আপত্তিতে বৈঠকে চেয়ার পেলেন না দলিত পঞ্চায়েত সভাপতি ]

এপ্রসঙ্গে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের এক আধিকারিক জানান, খবরের ভিত্তিতে ওই এলাকায় অভিযান চালানো হচ্ছিল। আচমকা লুকনো জায়গা থেকে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। কিন্তু, নিরাপত্তারক্ষীদের গুলিতে দুই জঙ্গি খতম হতেই বাকিরা পালিয়ে যায়। ধৃতদের মধ্যে একজন কুখ্যাত লস্কর জঙ্গি জাহিদ টাইগার বলে জানা গিয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দুটি একে-৪৭ রাইফেল, কার্তুজ ও জেহাদি কাগজপত্র উদ্ধার হয়েছে। মৃত জঙ্গিদের বাকি সঙ্গীরা পলাতক। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে তাদের সন্ধানে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর থেকেই কাশ্মীরকে জঙ্গিমুক্ত করার কাজে লাগাতার অভিযান চালাচ্ছে ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থাগুলি। করোনা ভাইরাসের জেরে হওয়া লকডাউনের মধ্যেও নিরাপত্তারক্ষীদের গুলিতে বহু জঙ্গি নিকেশ হয়েছে। তারপরও কমেছে না নাশকতা চালানোর চেষ্টা। তবে সজাগ রয়েছে ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থাগুলিও। তাদের তৎপরতার জন্যই সুরক্ষিত রয়েছে দেশের সাধারণ নাগরিকদের জীবন।

[আরও পড়ুন: নিজের অপহরণের গল্প ফেঁদে বাবার কাছে ১০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি! পুলিশের জালে নবম শ্রেণির ছাত্র ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement