BREAKING NEWS

১২ ফাল্গুন  ১৪২৭  বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

এবার বিহারের পথে মধ্যপ্রদেশও! ‘মদমুক্ত’ রাজ্য গড়ার ইঙ্গিত মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 7, 2021 4:45 pm|    Updated: February 7, 2021 4:56 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিহারের পথেই কি হাঁটতে চলেছে মধ্যপ্রদেশ? অন্তত এমনটাই চান মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান (Shivraj Singh Chouhan)। শনিবার মধ্যপ্রদেশের কাটনিতে এক জনসভায় শিবরাজ বলেন, সরকার রাজ্যজুড়ে মদ বন্ধের ব্যাপারে কার্যকরী পদক্ষেপ নিচ্ছে। সরকার এ ব্যাপারে প্রচারে নামছে যাতে মধ্যপ্রদেশের মানুষ মদ্যপান করা বন্ধ করেন। মানুষের চেষ্টাতেই মধ্যপ্রদেশ খুব তাড়াতাড়ি ‘ভাল’ রাজ্যে পরিণত হবে। শিবরাজ এও জানান, তিনিও মনেপ্রাণে চান মধ্যপ্রদেশ মদ-বিহীন রাজ্য হোক।

মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য একথাও জানিয়েছেন, ” শুধুমাত্র মদ নিষিদ্ধ করার আইন করলেই এই সমস্যা মিটবে না। মানুষ যদি মদ্যপানের অভ্যাস ছাড়তে না পারেন, তাহলে যোগান বজায় থাকবে। তাই আমরা চাই নিবিড় প্রচার, যার মধ্যে দিয়ে মানুষ নিজে থেকেই মদ খাওয়া বন্ধ রাখেন বা ছেড়ে দেন। তাহলেই মধ্যপ্রদেশ একটি ভাল রাজ্যে পরিণত হবে।” এর আগে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারও (Nitish Kumar) সে রাজ্যে মদ বন্ধের পথে হেঁটেছিলেন। মহিলাদের বাহবাও কুড়িয়েছিলেন। ভোটেও এসেছিল সাফল্য। এবার সেই পথ অনুসরণ করতে চাইছেন শিবরাজও।

[আরও পড়ুন: চাকরির টোপ, আগ্রার তিন মহিলাকে প্রকাশ্যে নিলামে তুলে পাচার]

নয়ের দশকে ‘দারু বনধ’ স্লোগানকে সামনে রেখে হরিয়ানায় ভোটে জিতেছিলেন বংশীলাল। কিন্তু ,পাঁচ বছরের মধ্যেই বংশীলালের এই সিদ্ধান্তকে কেন্দ্র করে ব্যাপক বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। শেষমেষ, ভোটে হার পর্যন্ত হয়েছিল বংশীলালের। কিন্তু, বিহারে নীতীশ কুমারের সেই অবস্থা হয়নি । শিবরাজ তাই আগেভাগেই আইন তৈরির তুলনায় সামাজিক প্রচারের ওপর জোর দিয়েছেন। যাতে মানুষের মধ্যেই মদ বন্ধের বিষয়ে সচতেনতা তৈরি হয়। ২০১৮ মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে প্রথমেই ক্ষমতায় আসতে পারেননি শিবরাজ সিং চৌহান। কংগ্রেসের (Congress) ভাঙনের ফলেই তাঁর মুখ্যমন্ত্রী হওয়া সম্ভব হয়েছে। সে কারণেই মদের মতো স্পর্শকাতর বিষয়ে আইন চাপিয়ে দেওয়ার আগে মানুষের মন বোঝার জন্যই প্রচারে জোর দিচ্ছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: উত্তরাখণ্ডের ধসে বাড়ছে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ! পাশে থাকার বার্তা মোদি-মমতার, শুরু উদ্ধারকাজ]

কাটনির এই জনসভা থেকে আগামী তিন বছরের মধ্যে কাটনি জেলার সব বাড়িতে ট্যাপ কলের মাধ্যমে পানীয় জল পৌছে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য সরকার বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৫০ জন বালিকাকে উদ্ধার করেছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement