BREAKING NEWS

১৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৯ মে ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনের জেরে আর্থিক মন্দা, তেলেঙ্গানায় সরকারি কর্মীদের বেতনে কোপ

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 31, 2020 12:18 pm|    Updated: March 31, 2020 4:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের জেরে মন্দা প্রভাব বিশ্বের অর্থনীতিতে। ভারতের অর্থনীতিতেও একই চিত্র। এই পরিস্থিতিতে বড় ঘোষণা তেলেঙ্গানা সরকারের। তেলেঙ্গানা সরকার জানান, “সরকারি কর্মীদের বেতন কমানো হবে ১০ থেকে ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত। যাঁরা উচ্চপদস্থ অফিসার, তাঁদের বেতনই কাটা যাবে সবচেয়ে বেশি।”

করোনা মোকাবিলায় প্রতিটি রাজ্য সরকারই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে নয়া সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। টানা লকডাউনের জেরে দেশজুড়ে ব্যবসা ও অর্থনীতি মন্দার মুখ দেখায় তেলেঙ্গানা সরকার নয়া সিদ্ধান্ত নেয়। আগামী মাসে সরকারি কর্মচারীদের পদ অনুযায়ী তাদের বেতন ১০ থেকে ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত কমানো হবে বলে জানান হয় । তেলঙ্গানা সরকার খুব নির্দিষ্ট করে জানিয়েছে,”সরকারি এক্সিকিউটিভ, জনপ্রতিনিধি এবং সরকারি কর্মীদের বেতন কমানো হবে। এছাড়া বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা এবং যে সংস্থাগুলি সরকারি অনুদান পেয়ে থাকে সেখানেও কর্মীদের বেতন কমবে। অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তিরাও কম পেনশন পাবেন।”

গত রবিবারই তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও ইঙ্গিত দেন, বেতন কমতে পারে বা বেতন পেতে দেরি হতে পারে সরকারি কর্মীদের। এরপর সোমবার জানানো হয়, “সরকারের এক উচ্চপর্যায়ের কমিটি বৈঠকে বসে। সেখানে রাজ্যের আর্থিক অবস্থা তারা খতিয়ে দেখে সরকারি কর্মীদের বেতন কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়। মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও-এর বেতন থেকেই প্রথমে ৭৫ শতাংশ বেতম কমানো হয়েছে।” মন্ত্রিসভার অন্যান্য সদস্য, এমএলএ এবং এমএলসি-রাও কম বেতন পাবেন।আইএএস, আইপিএস, আইএফএসদের বেতন কাটা যাবে ৬০ শতাংশ। অন্যান্য কেন্দ্রীয় সরকারি অফিসারদের বেতন কমবে ৫০ শতাংশ। চতুর্থ শ্রেণির কর্মীদের ১০ শতাংশ বেতন কাটা যাবে। একই সিদ্ধান্ত মহারাষ্ট্রেও। এ ও বি গ্রেডের সরকারি কর্মীদের বেতন থেকে ৫০ শতাংশ, সি গ্রুপের কর্মীদের থেকে ২৫ শতাংশ ও তার নিম্নবর্তী স্তরে থাকা কর্মীদের থেকে কোনও বেতন কাটা হবে না বলে জানান মহারাষ্ট্রের উপমুখ্যমন্ত্রী অজিত পাওয়ার।

[আরও পড়ুন: প্রতি ঘণ্টায় চাই হোম কোয়ারেন্টাইনদের সেলফি! নয়া ঘোষণা কর্ণাটক সরকারের]

নিজের রাজ্যকে করোনা ভাইরাস থেকে মুক্ত করতে প্রথম থেকেই কড়া হাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে শুরু করেছিলেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। লকডাউনের মাঝেও তার অন্যথা হল না। একের পর এক নয়া সিদ্ধান্ত নিয়ে নজির গড়ে তুলেছেন তিনি। ৭ এপ্রিলের মধ্যে নিজের রাজ্যকে করোনা মুক্ত করার লক্ষ্য ও স্থির করে ফেলেছেন ইতিমধ্যেই। লকডাউনের সময় নিজেকে তথা নিজের রাজ্যকে নিয়ন্ত্রণ করার বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: আশঙ্কাই সত্যি, দিল্লির মসজিদের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া আটজনের মৃত্যু করোনায়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement