১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘লকডাউন না মানলেই গুলি চালানো হবে’, সংক্রমণ রুখতে হুঁশিয়ারি তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 25, 2020 11:57 am|    Updated: March 25, 2020 11:57 am

Lockdown Violators will be shoot at sight: K Chandrasekhar Rao

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউন না মেনে রাস্তায় কাউকে বেরোতে দেখলেই গুলির নিদান দিলেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশজুড়ে লকডাউনের ঘোষণা করেন। পাশাপাশি দেশবাসীকে আগামী ২১ দিন বাড়িতে থাকারও পরামর্শ দেন। তাই প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ কেউ অমান্য করলে তাঁদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি দেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী।

মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করার পরই খড়গহস্ত হয়ে ওঠেন তেলেঙ্গানা মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। প্রথমে তিনি জনগণের কাছে আবেদন করেন লকডাউনের সময় ঘরে থাকতে। সঙ্গে রাজ্যবাসীকে প্রশাসনের সঙ্গে সহযোগিতারও আরজি জানান। তারপরই তিনি বলেন, ‘যদি পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে না পারে তাহলে দেখামাত্র গুলি করার নির্দেশ দেওয়া হবে। সেইসঙ্গে সেনাও মোতায়েন করা হবে।’ যদিও এই নির্দেশিকা এখনও রাজ্য পুলিশের কাছে পাঠান হয়নি, তবে শীঘ্রই তা পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে জানা যায়। দেশের এই পরিস্থিতি চন্দ্রশেখর রাও সব রাজনৈতিক নেতাদের কাছেও আবেদন করেন, সোশ্যাল ডিসটেন্স বজার রাখার জন্য। তিনি বলেন,”সব নেতারা কোথায়? আমি রাস্তায় কোনও নেতাকে দেখতে পাচ্ছি না। আমি শুধু পুলিশ, পুরসভা ও অন্যান্য দপ্তরের কর্মীদের দেখছি। মানুষকে সাহায্য করার জন্য নেতাদের বেরিয়ে আসতে হবে।” কোনও জরুরি প্রয়োজন হলে রাজ্যবাসীকে ১০০ নম্বরে ডায়াল করার পরামর্শ দিয়েছেন চন্দ্রশেখর রাও। এই সময় রাজ্যের ব্যবসায়ীদের কালোবাজারি থেকেও দূরে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী। কোনও অসাধু ব্যবসায়ী নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বেশি নিলে তাঁদের লাইসেন্স বাজেয়াপ্ত করারও হুঁশিয়ারি দেন চন্দ্রশেখর রাও। তবে রাজ্যে প্রতিদিন রাত ৭টা থেকে পরদিন সকাল ৬টা পর্যন্ত দোকান বন্ধ থাকবে বলেও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন:করোনা আতঙ্কের জেরে পিছিয়ে গেল NPR,আপাতত স্থগিত জনগণনাও]

তেলেঙ্গানায় এখনও পর্যন্ত ৩৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। কিন্তু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলেই জানিয়েছে কেসিআর। মুখ্যমন্ত্রী বলেন,”যাঁরা বিদেশ থেকে এসেছেন তাঁদের ১৪ দিন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে। কেউ এই নিয়ম ভাঙলে তাঁর পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত হবে ও শাস্তি দেওয়া হবে।” গ্রামাঞ্চলে এই সমস্যা খুব একটা বেশি দেখা না যাওয়ায় কৃষি ও তার সঙ্গে যুক্ত কাজকর্ম চলবে বলেই জানিয়েছেন চন্দ্রশেখর রাও। চাষিদের কাছ থেকে সরকার সরাসরি খাদ্যশস্য কিনবে বলে আশ্বাস দেন তিনি। তাঁর প্রতিশ্রুতি মতো যাঁদের রেশন কার্ড আছে তাঁদের চাল ও ১৫০০ করে টাকা দেওয়া হবে বলে।

[আরও পড়ুন:দেশজুড়ে লকডাউনের অর্থ কী? করোনা মোকাবিলায় জেনে নিন নানা তথ্য]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে